Logo
শিরোনাম

মুকুট নিয়ে আজ ফিরছে বাঘিনীরা

প্রকাশিত:বুধবার ২১ সেপ্টেম্বর ২০২২ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ০৬ অক্টোবর ২০২২ |
Image

সব অপেক্ষার অবসান ঘটছে। হিমালয়ের দেশ থেকে সাফ চ্যাম্পিয়নশিপের মুকুট নিয়ে দেশে ফিরছেন বাংলাদেশ নারী ফুটবল দল।  দুপুরে ট্রফি নিয়ে ঢাকায় পা রাখবেন সাফজয়ী লাল-সবুজের মেয়েরা।

সাফ চ্যাম্পিয়নশিপের ট্রফি নিয়ে ছাদখোলা বাসে ঘরে ফিরতে চেয়েছেন বাংলাদেশ নারী ফুটবলাররা। তাঁদের সেই স্বপ্ন পূরণ করতে যাচ্ছে ক্রীড়া মন্ত্রণালয়। সাফজয়ী মেয়েদের জন্য ছাদখোলা বাসের ব্যবস্থা করেছে যুব ও ক্রীড়া মন্ত্রণালয়।

বুধবার কাঠমান্ডু থেকে স্থানীয় সময় দুপুর ১২টায় বাংলাদেশের বিমানের একটি ফ্লাইটে করে ঢাকায় রওনা হবে বাংলাদেশ নারী দল। দুপুর দেড়টা নাগাদ ঢাকায় পা রাখবেন সাবিনারা।

ঢাকায় পা রেখে বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশন ও ক্রীড়া মন্ত্রণালয়ের পক্ষ থেকে সংবর্ধনা পাবেন চ্যাম্পিয়ন মেয়েরা। এরপর সেখানে তাদের ফেরার জন্য অপেক্ষায় থাকবে ছাদখোলা বাস। যাতে চড়ে বাফুফে ভবনে ফিরবেন সানজিদা-কৃষ্ণারা।

বিমানবন্দর থেকে সাবিনাদের বাস এয়ারপোর্ট, কাকলী, প্রধানমন্ত্রী কার্যালয়, বিজয় সরণি ফ্লাইওভার, তেজগাঁও, মগবাজার হয়ে মৌচাক-কাকরাইল-ফকিরাপুল-মতিঝিল হয়ে পৌঁছাবে বাফুফে ভবনে। এরপর সেখানে মতিঝিলে বাফুফে ভবনে সভাপতি কাজী সালাউদ্দিন খেলোয়াড়দের সংবর্ধনা দেবেন।


আরও খবর

নারী এশিয়া কাপ ক্রিকেট

রবিবার ০২ অক্টোবর 2০২2

নারী এশিয়া কাপ ক্রিকেট

শনিবার ০১ অক্টোবর ২০২২




মোড়েলগঞ্জে দূর্গোৎসবে পূজা মন্ডপে সম্প্রতির বন্ধনে

প্রকাশিত:বুধবার ০৫ অক্টোবর ২০২২ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ০৬ অক্টোবর ২০২২ |
Image

এম.পলাশ শরীফ, নিজস্ব প্রতিবেদকঃ

 বাগেরহাটের মোড়েলগঞ্জে শারদীয় দুর্গোৎসবে নবমীতে বিভিন্ন পূজা মন্ডপ পরিদর্শন করেছেন আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় উপ কমিটির বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিষয়ক সদস্য এইচ.এম মিজানুর রহমান জনী। 

  মঙ্গলবার রাত ৮টায় মোড়েলগঞ্জ শহরের কেন্দ্রীয় হরিসভা মন্দির, সাধক রামপ্রসাদ কালি মন্দির ও সেরেস্তাদারবাড়ি নবারুন সংঘ দূর্গা মন্দিরে কুশল বিনিময় করেন। 

এর পূর্বে তিনি শরণখোলা উপজেলার রায়েন্দা সার্বজনীন কালি মন্দিরের দূর্গা মন্ডপ, আমড়াগাছিয়া সার্বজনীন দূর্গা মন্দির ও পূর্ব আমড়াগাছিয়া সার্বজনীন দূর্গা মন্দির পরিদর্শন করে পূজারি ভক্তবৃন্দের সাথে মতবিনিময় করেন।

 এ সময়  মোড়েলগঞ্জ হরিসভা মন্দিরের সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা রনজিৎ ঘরাই, সাধারণ সম্পাদক রতন কুমার সাহা, পরেশ দেবনাথ, স্বপন কুমার সাহা, সাবেক ছাত্রলীগ নেতা এ্যাড. গোলাম কিবরিয়া তারিক, পৌর স্বেচ্ছাসেবক লীগের আহবায়ক ইউপি সদস্য টিএম জাকির হোসেন, সাধারণ সম্পাদক আসাদুজ্জামান মিলন, ছাত্রলীগ নেতা আমিনুল ইসলাম নয়ন। 

অন্যান্যের মধ্যে শরণখোলা উপজেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সভাপতি আব্দুর রশিদ আকন, মস্যজীবি লীগের কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য মো.শাহাদাৎ হোসেন স্বেচ্ছাসেবক লীগের সাধারণ সম্পাদক আকন্দ ইব্রাহিম সুমন, আওয়ামী লীগ নেতা গোপাল কর্মকার, যুবলীগ নেতা গিয়াস উদ্দিন তালুকদার, ধানসাগর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ নেতা তপু বিশ্বাস, মাষ্টার স্বপন মৃত্রসহ বিভিন্ন নেতৃবৃন্দ।  

এ সময় মোরেলগঞ্জ-শরণখোলা আসনের আওয়ামীলীগের মনোনয়ন প্রত্যাশী এইচ.এম মিজানুর রহমান জনী বলেন, আওয়ামী লীগ সরকার ক্ষমতায় থাকলে দূর্গোৎসব অনুষ্ঠান সম্প্রতির বন্ধনে মিলন মেলায় পরিনত হয়। জননেত্রী শেখ হাসিনা-এর নের্তৃত্বে দেশের উন্নয়নের ধারাবাহিকতা বজায় রাখতে আগামি দ্বাদশ সংসদ নির্বাচনে পুনরায় নৌকায় ভোট দিয়ে আওয়ামী লীগকে বিজয় করার আহবান জানান। তিনি মন্দির কমিটির নেতৃবৃন্দ ও ভক্তবৃন্দের সাথে কুশল বিনিময় করেন। 


আরও খবর



বাৎসরিক শারদীয় দুর্গোৎসব আমাদের সবার: বদিউজ্জামান সোহাগ

প্রকাশিত:সোমবার ০৩ অক্টোবর ২০২২ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ০৬ অক্টোবর ২০২২ |
Image

এম.পলাশ শরীফ, নিজস্ব প্রতিবেদকঃ

বাংলাদেশ ছাত্রলীগ কেন্দ্রীয় কমিটির সাবেক সভাপতি এইচ. এম বদিউজ্জামান সোহাগ বলেছেন, শারদীয় দুর্গোৎসব শুধু সনাতন ধর্মাবলম্বীদের নয়। তারা এ উৎসবের আয়োজন করে মাত্র। সফল করে তুলি আমরা সকলে। এটা আমাদের সবার উৎসব।

 বদিউজ্জামান সোহাগ সোমবার মহা অষ্টমীর রাত ৮টার দিকে মোড়েলগঞ্জের পূজামণ্ডপগুলো ঘুরে দেখেন। তিনি মন্দির কিমিটির নেতৃবৃন্দ ও দর্শনার্থীদের সাথে কুশল বিনিময় করেন।

এ সময় বীর মুক্তিযোদ্ধা রনজিৎ ঘরাই, বরিশালের অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক মন্দিপ ঘরাই, অধ্যাপক মাহফিজুর রহমান, চেয়ারম্যান শাজাহান আলী খান, সাবেক চেয়ারম্যান অধ্যক্ষ আব্দুল হাই খান, অধ্যক্ষ শাহাবুদ্দিন তালুকদার, কাউন্সিলর শংকর কুমার রায়, অশোক সাহা বক্তৃতা করেন। 

 এ ছাড়াও যুবলীগের সাবেক সভাপতি মো. মুশফেকুর রহমান নাহার, মো. হাসিব খান, রাসেল হাওলাদার, ছাত্রলীগ সাবেক সভাপতি ওবাইদুল ইসলাম টিটু, মোস্তাক বিল্লাহ রূপম, মনির হোসেন রাজ্জাক এ সময় উপস্থিত ছিলেন। 


আরও খবর



ফুলবাড়িতে, জন্মগত শারীরিক অক্ষমতা সম্পন্ন

মজিদ পাগলার শেষ আশ্রয় বোনের সংসার

প্রকাশিত:রবিবার ১১ সেপ্টেম্বর ২০২২ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ০৬ অক্টোবর ২০২২ |
Image

উত্তম কুমার মোহন্ত,ফুলবাড়ী, কুড়িগ্রামঃ

বাস্তব এক ইতিহাস ভাই বড় ধন রক্তের বাঁধন, সেই রক্তের বন্ধন যায়কি কোনদিন খণ্ডন।অচল বৃদ্ধবড় ভাইয়ের প্রতি বিধবা দুইছোট বোনের যে মায়া মমতা ভালোবাসা দেখতে যদি চাও,তাহলে পশ্চিম অনন্তপুর বাকুয়ার ভিটা গ্রামে চলে যাও। জন্মগতভাবে শারীরিক অক্ষমতা সম্পন্ন আব্দুল মজিদ পাগলার(৬৫)শেষ আশ্রয় স্থল তার ছোট দুই বিধবা বোনের ছোট্ট সংসার। সেই সংসারেও উপার্জনক্ষম নেই কেউ।বৃদ্ধ তিন ভাই বোন মিলে অতিকষ্টে দিনাতিপাত করছেন।

কুড়িগ্রামের ফুলবাড়ী উপজেলার কাশিপুর ইউনিয়নের পশ্চিম অনন্তপুর মৌজার বাকুয়ার ভিটা গ্রামের মৃত: মোহাম্মদ আলীর ছেলে, আব্দুল মজিদ পাগলা (৬৫) এলাকার সকলের কাছে মজিদ পাগলা নামে পরিচিত।

সরেজমিনে গিয়ে জানাযায়, আব্দুল মজিদ পাগলা জন্মগত ভাবে শারীরিক অক্ষমতা সম্পন্ন ছিলেন।ছোট বেলা থেকেই ভালোভাবে হাঁটাচলা করতে পারতেন না। শারীরিক নিয়ন্ত্রণ ক্ষমতা ক্ষীণ থাকায় লক্ষ্যেস্থির করে একদিকে হাঁটতে চাইলে অন্যদিকে চলে যেত।লাঠিতে ভর করে কোনরকমে এলাকাতেই চলাফেরা করত। তখন এলাকার লোকজনের নিকট সাহায্য সহযোগিতা ও ভিক্ষাবৃত্তি করে কোন মতেই জীবিকা নির্বাহ করতেন।এখন বয়োঃবার্ধক্যের ভারে চলাফেরার ক্ষমতা হারিয়ে ফেলে শরীরে নানা রোগ বাসা বেঁধেছে সবমিলে দুর্বিষহবস্থায় বিছানায় শুইয়ে বসে কাটাতে হচ্ছে দিন রজনী। জীবনের অনেক চড়াই উৎরাই পেরিয়ে কষ্ট করে জীবন যাপন করতেন শেষ বয়সে এসেও ভালো নেই সহদর তিন ভাইবোন। পৈত্রিক ভিটায় মাত্র আট শতাংশ জমিতে তিন সহদরের মাথা গোঁজার ঠাঁই হলেও উপার্জনক্ষম কেউ নেই। ছোট দুই বোনের  ছেলে মেয়েদের বিয়ে হয়েছে মেয়েরা শ্বশুরালয়ে আর ছেলেরা পৃথক পৃথক ভাবে নিজেদের ঘর-সংসার নিয়ে ব্যস্ত,কেউ তাদের খোঁজ খবর রাখে না। বয়োবৃদ্ধ তিন ভাইবোন একসাথে অতিকষ্টে দিন যাপন করে বসবাস করছেন। 

০৯(সেপ্টেম্বর)শুক্রবার দুপুরে মজিদ পাগলার বাড়িতে গিয়ে দেখা যায়, মাত্র চারটি টিন দিয়ে তৈরি ছোট একটি ছাপরা ঘর পুরোনো চাটাই দিয়ে তৈরি জীর্ণশীর্ণ বেড়ায় বেষ্টিত ঘরে প্রচণ্ড রোধের তাপে ছাপরার টিন গুলো আগুনের মতো গরম হয়ে ঘরের ভিতরে পর্যন্ত গরম ভাপ ছুটেছে সেই গরমে মজিদ পাগলা ছোট একটা কাঠের চৌকিতে বসে আছে এদিকে শরীর ঘেমে পানি পরছে নিচে।ঘরের ভিতরে আসবাবপত্র বলতে কাঠের চৌকিটি আর ঘরের এক খুটি থেকে আর এক খুঁটিতে রশি টাঙ্গানো তাতেদুই তিনটি ছিরাফাটা ময়লা পরিধানের কাপড় চোপড় আর কিছু নেই। এমতাবস্থায় ঘরের ভিতরে ঢুকতেই অপরিচিত লোক দেখে চমকে উঠলেন তিনি পরে স্থানীয় কয়েক জনকে সঙ্গে দেখতে পেয়ে খুশিতে মলিন ভাবে একটা হাসি দিয়ে ফেললেন।

কেমন আছেন জানতে চাইলে,দুচোখে জল ছলছল হয়ে এলো কিছুক্ষণ পর মজিদ পাগলা অশ্রুসিক্ত নয়নে বললেন কি আর ভালরে ভাই আগোত তাও লাঠিঢোকা দিয়া চলাফেরা করিয়া এলাকার সগার সাথে দেখা কইরব্যার পাইচোং কথাবার্তা কবার পাইচোং এলা আর শরীলোত বল পাংনা ভাই। এক বছর থাকি ঘরোত পরি আচোং ক্যাং করি ভাল থাকোং।ঘরোত সুতি থাইক প্যার আর ভাল লাগে না।সউগ সময় সুতি থাইকতে, থাইকতে অসুখ মনে হয় মোক আরো বেশি করি ঠাশি ধইর ব্যার নাইকচে। তোমাক গুলাক অনুরোধ করি কংরে ভাই যদি মোক কাইও একটা হুইলচেয়ার দান করিল হয় তাহলে মরার আগোত বাইরার আলো বাতাস দেখি শান্তি পানুহয়। একনা দেখরে ভাই কারোটে এখান হুইলচেয়ার নিয়া দিবার পান নাকি। হুইলচেয়ারোত বসি একনা বাইরে গেনুং হয়।

মজিদ পাগলার বিধবা দুই ছোট বোন জামিলা বেওয়া (৫৪) ও ছালেহা বেওয়া (৫২) বলেন, আমার তিন ভাইবোন মিলে পৈত্রিক ভিটে মাটি আট শতাংশ ছাড়া আর কিছুই নাই।এমনিতেই আমাদের দুই বোনের অভাব অনটনে দিন কাটাতে হয় তারপর বড়ভাই অচল অবস্থায় কোথায় ফেলে দেই সব কিছু ত্যাগ করা রায় রক্তের সম্পর্ক তো আর ত্যাগ করা যায় না একেই মায়ের ওদোরে তিন ভাই বোনে ছিলাম। আল্লাহ যতদিন বাঁচে রাখবে ততদিন একসাথে থাকব আমাদের বাবা বেঁচে নাই বাবার মতো বড়ভাই কে শত দুঃখ কষ্টের মাঝেও ফেলে দিবো না।আমাদের দুইবোনের ও বয়স হয়েছে তারপরও অসুস্থ পাগলা ভাইটাকে কষ্ট করে ঘর বাহির করি ঘরে থাকতে থাকতে ভাইটা বাহির হবার জন্য কেঁদে ওঠে ভাইয়ের এতকষ্ঠ আমরা সইতে পারি না কেউ যদি দয়া করে আমাদের অচল পাগলা ভাইটাকে একটা হুইলচেয়ার দান করতো তাহলে ঘর বাহির করতে কষ্ট একটু কম হতো। হুইলচেয়ার থাকলে পাগলা প্রতিবন্ধী ভাইটা সহ-আমাদের দুই বোনের এই বয়সে একটু হলেও কষ্টটা লাঘব হতো।

স্থানীয় একটি কিন্ডারগার্টেন পরিচালক মোঃ আব্দুল জব্বার (৩৭)পল্লি চিকিৎসক জাহাঙ্গীর আলম (৪১) খলিলুর রহমান (৫৪) রফিকুল ইসলাম (৪০) সহ-আরো অনেকে জানালেন মজিদ পাগলা জন্মগত শারীরিক প্রতিবন্ধী হত্তয়ায় কর্মক্ষমতা অক্ষম ছিলেন ভিক্ষাবৃত্তি করে কোনমতে জীবিকা নির্বাহ করতেন। যৌবনের একটি সময়ে বিয়েও করেন তিনি।

শারীরিক অক্ষমতার কারণে‌ সেই সংসার জীবনও বেশিদিন টিকে থাকেনি বিয়ের কিছু দিন পর স্ত্রী তাকে ছেড়ে চলে যান, তারপরে দ্বিতীয় বিয়ের কথা আর কোনদিন ভাবেননি তিনি। এখন বয়োঃবৃদ্ধির সাথে সাথে শরীরে বাসা বেঁধেছে নানান রোগ চলাফেরা করতে পারে না দিনরাত ঘরের ভিতরে সুইয়ে বসে থাকতে হয়।মজিদ পাগলার আপনজন বলতে বিধবা দুইটি ছোটবোন ছাড়া আর কেউ নেই।বোনদের সংসারের অবস্থা অসচ্ছল তারপরেও রক্তের টানে অচল পাগলা বড়ভাই কে নিজেদের কাছে রেখে দেখা শুনা করছেন। তাদের ও বয়স হয়েছে একসাথে তিন ভাইবোন মিলে দুঃখ কষ্ট সহ্য করে সাথে অতিকষ্টে দিনযাপন করছেন।স্থানীয় অনেক শুভা কাঙ্ক্ষীরাও একই কথা বলেন যে,সমাজের অনেক হৃদয়বান ও দানশীল ব্যক্তিবর্গ আছেন কেউ যদি এই অচল মজিদ পাগলাকে একটা হুইলচেয়ার দান করতো তাহলে বৃদ্ধ তিনভাই বোনের কষ্টটা একটু লাঘব হতো। 


আরও খবর



ভারতের বিতর্কিত নাগরিকত্ব সংশোধন আইন

প্রকাশিত:সোমবার ১২ সেপ্টেম্বর ২০২২ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ০৬ অক্টোবর ২০২২ |
Image

ভারতের বিতর্কিত নাগরিকত্ব সংশোধন আইন--সিএএ মামলার শুনানি শুরু হয়েছে আজ। ২০১৯ সালের ডিসেম্বরে নরেন্দ্র মোদী সরকারের তৈরি এ আইনের সাংবিধানিক বৈধতা চ্যালেঞ্জ জানিয়ে সুপ্রিম কোর্টে এই জনস্বার্থ মামলাগুলো করা হয়েছিল।

শুনানি হচ্ছে সুপ্রিম কোর্টের প্রধান বিচারপতি উদয় উমেশ ললিত ও বিচারপতি এস রবীন্দ্র ভাটের এজলাসে। সুপ্রিম কোর্টের ১৫টি বেঞ্চে মোট ২২৮টি জনস্বার্থ মামলার শুনানির দিন ধার্য হয়েছে। এর মধ্যে প্রধান বিচারপতির এজলাসেই হবে ২০৫টির শুনানি, যার মধ্যে ১৮৯টি মামলা সিএএর সাংবিধানিক বৈধতাকে চ্যালেঞ্জ জানিয়ে মামলা করা হয়েছিল। সংশোধিত আইনে বলা হয়েছে, বাংলাদেশ, পাকিস্তান ও আফগানিস্তানের সংখ্যালঘু সম্প্রদায়, যদি ধর্মীয় অত্যাচারের কারণে ভারতের নাগরিকত্ব চায়, তাহলে তাদের তা দেওয়া হবে। 


আরও খবর

চিকিৎসাবিজ্ঞানের নোবেল ঘোষণা

মঙ্গলবার ০৪ অক্টোবর ২০২২




কুমিল্লায় ব্যবসায়ীদের অবস্থান কর্মসূচি

প্রকাশিত:শনিবার ১০ সেপ্টেম্বর ২০২২ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ০৪ অক্টোবর ২০২২ |
Image

কুমিল্লা ব্যুরো ঃ

জেলা পরিষদের নির্বাচনে কুমিল্লা দোকান মালিক সমিতি ফেডারেশনের সাধারণ সম্পাদক ও মহানগর আওয়ামীলীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আতিক উল্লাহ খোকনকে আসন্ন জেলা প‌রিষদ নির্বাচ‌নে চেয়ারম্যান পদে আওয়ামীলীগের মনোনয়ন দেয়ার দাবী জানিয়ে অবস্থান কর্মসূচী পালন করেছে ব্যবসায়ীরা। 

শনিবার সকাল ১১টা থেকে শুরু হ‌য়ে ঘন্টাব‌্যা‌পি এ অবস্থান কর্মসূ‌চি‌ পালন ক‌রে কু‌মিল্লা ৬২‌টি ব‌্যবসায়ী স‌মি‌তির প্রায় ক‌য়েক হাজার মা‌লিক কর্মচারীরা। এ সময় তারা আতিক উল্লাহ খোকনকে মনোনয়ন দেয়ার জন্য দলীয় সভানেত্রী ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার প্রতি আবেদন সম্বলিত ব্যানার নিয়ে নগরীর সকল বিপণী বিতান, বাজার ও নিজ নিজ ব্যবসা প্রতিষ্ঠানের সামনে অবস্থান নেন।  

অবস্থান কর্মসূচিতে কুমিল্লা দোকান মালিক সমিতি ফেডারেশনের সহ-সভাপতি আমিনুল ইসলাম, রেজাউল করিম রতন, যুগ্ম-সাধারন সম্পাদক জহিরুল ইসলাম জহির, কোষাধ‌্যক্ষ মাসুদুর রহমান মাসুদসহ ফেডারেশনের অর্ন্তভূক্ত বিভিন্ন সমিতির নেতৃবৃন্দ বক্তব্য দেন।

অবস্থান কর্মসূচিতে ব্যবসায়ীরা বলেন, কুমিল্লা সিটি নির্বাচন পরিচালনার প্রধানসহ বিভিন্ন নির্বাচনে মুখ্য ভূমিকা পালন করে নৌকার পক্ষের প্রার্থীদের জয়ে ভূমিকায় অবদান রেখেছেন। একনিষ্টভাবে দীর্ঘকাল দলের জন্য কাজ করেছেন।  তাছাড়া দলের পাশাপাশি কুমিল্লা দোকান মালিক সমিতির অর্ন্তভূক্ত সকল সমিতিকে সুসংগঠিত করেছেন। জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান পদে আতিক উল্লাহ খোকনের নৌকা প্রতীকের মনোনয়ন এখন গণদাবীতে পরিণত হয়েছে।

এ‌দি‌কে আওয়ামী লীগের প্রার্থী তা জানা যাবে আজ। বিকেল ৪ টায় গণভবনে আওয়ামী লীগের সংসদীয় ও স্থানীয় সরকার জনপ্রতিনিধি মনোনয়ন বোর্ডের যৌথসভা অনুষ্ঠিত হবে। ওই সভায় সভাপতিত্ব করবেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

 আগামী ১৭অক্টোবর কুমিল্লা জেলা পরিষদ নির্বাচনে ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে।

এদিকে কুমিল্লা জেলা পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে আওয়ামী লীগের প্রার্থী হতে ইতোমধ্যে ১৫ জন ব্যক্তি দলীয় মনোনয়নের আবেদন ফরম সংগ্রহ করে জমা দিয়েছেন। এখন কেন্দ্রীয় সিদ্ধান্তের অপেক্ষা; আর এ নিয়ে জেলাজুড়ে চলছে আলোচনা কে হবেন আওয়ামী লীগের প্রার্থী।

গত ৮ সেপ্টেম্বর আওয়ামী লীগের মনোয়ন ফরম সংগ্রহের শেষ দিন পর্যন্ত মনোনয়ন ফরম সংগ্রহ করেছেন কুমিল্লা জেলা পরিষদের বর্তমান প্রশাসক ও সাবেক চেয়ারম্যান রিয়ার এডমিরাল (অব.) আবু তাহের, সাবেক প্রশাসক ও মহানগর আওয়ামী লীগের ঊর্ধ্বতন সহ সভাপতি আলহাজ্ব মোঃ ওমর ফারুক, জেলা আওয়ামী লীগের সহ সভাপতি মফিজুর রহমান বাবলু, মহানগর আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আতিক উল্লাহ খোকন, জেলা আওয়ামী লীগের অর্থ সম্পাদক আলী আকবর, ঔষধ প্রশাসনের সাবেক ডিজি মেজর জেনারেল অব. মোস্তাফিজুর রহমান, শহর আওয়ামী লীগের সাবেক প্রচার সম্পাদক শ্যামল চন্দ্র ভট্টাচার্য্য, উত্তর জেলা আওয়ামী লীগের সহ সভাপতি ড. আবদুল মান্নান জয়, উত্তর জেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক জাহাঙ্গীর আলম সরকার, দক্ষিণ জেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক এডভোকেট কামরুল ইসলাম, বীর মুক্তিযোদ্ধা ও সাংস্কৃতিক সংগঠক নাজমুল আহসান পাখি, দক্ষিণ জেলা আওয়ামী লীগের স্বাস্থ্য বিষয়ক সম্পাদক ডা. এবিএমখোরশেদ আলম, আদর্শ সদর উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি কাজী আবুল বাশার, উত্তর জেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি রুহুল আমিন । 

কুমিল্লা জেলা নির্বাচন কার্যালয় সূত্রে জানা গেছে, কুমিল্লা জেলা পরিষদ নির্বাচনে মোট ভোটর সংখ্যা ২ হাজার ৬৭৬ জন। এর মধ্যে ২ হাজার ৪৯ জন পুরুষ ভোটার এবং নারী ভোটার ৬২৭ জন। আগামী ১৭ অক্টোবর কুমিল্লা জেলা পরিষদ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে।তফসিল অনুযায়ী-মনোনয়নপত্র দাখিলের শেষ সময় ১৫ সেপ্টেম্বর, মনোনয়নপত্র বাছাই ১৮ সেপ্টেম্বর, মনোনয়নপত্র বাছাইয়ের বিরুদ্ধে আপিল দায়েরের সময় ১৯ থেকে ২১ সেপ্টেম্বর, আপিল নিষ্পত্তি ২২ থেকে ২৪ সেপ্টেম্বর, প্রার্থিতা প্রত্যাহারের শেষ সময় ২৫ সেপ্টেম্বর। প্রতীক বরাদ্দ ২৬ সেপ্টেম্বর।

এর আগে বর্তমান প্রশাসক রিয়ার এডমিরাল (অব.) আবু তাহের সর্বশেষ চেয়ারম্যান হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন এবং মেয়াদ শেষ হবার পর গত ২৭ এপ্রিল আবারো তাকে প্রশাসক হিসেবে নিয়োগ দেয়া হয়।


আরও খবর

পুলিশের পক্ষে বললেন খামেনি

মঙ্গলবার ০৪ অক্টোবর ২০২২