Logo
শিরোনাম

নতুন রূপে সেজেছে সাগরকন্যা

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ০২ আগস্ট 2০২2 | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ০৬ অক্টোবর ২০২২ |
Image

মইনুল ইসলাম মিতুল :  পর্যটনের অপার সম্ভাবনা সত্বেও যোগাযোগ অবকাঠামোর অভাবে পিছিয়ে ছিল । কিন্তু পদ্মা সেতু উদ্বোধনের পর এই ‘সাগরকন্যা’ সেজেছে নতুন রূপে। বেড়েছে পর্যটকও। তবে অপরিকল্পিত ব্যবস্থাপনায় পর্যাটকদের ভোগান্তি রয়ে গেছে।

পদ্মা সেতু চালুর পর কুয়াকাটার প্রতি পর্যটকদের কাছে আগ্রহ বেড়েছে জানিয়ে রুম্মান ইমতিয়াজ বলেন, এবার চট্টগাম, মানিকগঞ্জ, মুন্সিগঞ্জ, গাজীপুর, ময়মনসিংহ, টাঙ্গাইল, জামালপুর থেকেও পর্যটকর আসছেন। তার যুক্তির বাস্তবতাও পাওয়া গেল। নেত্রকোনা থেকে যাওয়া পর্যটক সোহেল, নাদিম, বিনয় ও বিপ্লব বলেন, ১১ ঘণ্টায় আমরা নেত্রকোনা থেকে এখানে এসেছি। নাদিয়া জানালেন, প্রাইভেটকারে ১০ ঘণ্টার কম সময়ে তারা পরিবারের সদস্যদের নিয়ে এখানে পৌঁছান।

কুয়াকাটা হোটেল-মোটেল ওনার্স অ্যাসোসিয়েশনের সাধারণ সম্পাদক মোতালেব শরীফ বলেন, কুয়াকাটায় অ্যাসোসিয়েশনভুক্ত হোটেল-মোটেল আছে ৭৪টি। এর বাইরে আছে ৫৬টি হোটেল-মোটেল। প্রথম শ্রেণির হোটেল রয়েছে ১৫টি। এসব হোটেল-মোটেলে সর্বোচ্চ ১৫ হাজারের মতো পর্যটক রাত যাপন করতে পারেন।

মোতালেব শরীফ আরো বলেন, আগে শুধু শীতকালে কুয়াকাটায় বেশি পর্যটক বেড়াতে আসতেন, এখন পদ্মা সেতু চালু হওয়ায় সারা বছরই কুয়াকাটায় পর্যটকেরা আসতে পারবেন। সেভাবেই আমরা সবকিছু ঢেলে সাজাচ্ছি।

এদিকে কুয়াকাটাসহ আশপাশের এলাকা ঘুরে বেড়ানোর জন্য ৩০০-৩৫০ ভাড়ায় চালিত মোটরসাইকেল রয়েছে। এসব মোটরসাইকেলচালক সমিতির সভাপতি আব্বাস কাজী। তিনি বলেন, পর্যটক বেড়ে যাওয়ায় একেকজন মোটরসাইকেলচালক এখন দিনে ১ হাজার ২০০ থেকে দেড় হাজার টাকা পর্যন্ত আয় করছেন। তাতে হিসাব করলে দেখা যায়, ৩৫০ মোটরসাইকেল থেকে দিনে গড়ে ৪ থেকে ৫ লাখ টাকা আয় হচ্ছে।

কুয়াকাটা পর্যটন পুলিশের পরিদর্শক হাসনাইন পারভেজ বলেন, পর্যটকদের নিরাপত্তায় পর্যটন পুলিশের বেশ কয়েকটি দল এ কাজ করছে। সৈকতে যাতে কোনো দুর্ঘটনা না ঘটে, সে জন্যও তৎপর রয়েছে পর্যটন পুলিশ।

সৈকতের পাশেই দেড় শতাধিক একর জমিতে অবস্থিত নারিকেল বাগান যা ‘নারিকেল কুঞ্জ’ নামেই পরিচিত। ১৯৬০ সালে ১৬৭ একর খাস জমি লীজ নিয়ে জনাব ফয়েজ মিয়া ‘ফার্মস এন্ড ফার্মস’ নামে এ বাগান করেন। সৈকতের পূর্ব দিকে রয়েছে মনোরম ঝাউ বাগান। ১৯৯৭/৯৮ অর্থ বছরে বন বিভাগ ১৫ হেক্টর জমিতে সি বিচ সংলগ্ন ঝাউ বাগান গড়ে তোলে। এর পরেই রয়েছে আর এক বিশাল বনাঞ্চল চরগঙ্গামতি। বনের মধ্যে রয়েছে ছৈলা, কেওড়া ও কড়াই বাগান ও একটি নয়নাভিরাম লেক। কুয়াকাটা সমূদ্র সৈকত থেকে ৫ কিলোমিটার পশ্চিমে লেম্বুর চরে বন বিভাগের একটি বাগান আছে। বনে রয়েছে কড়াই, গেওয়া, ছৈলা ও কেওড়া গাছ। বেড়াতে আসা পর্যটকরা এখানে যায়। আন্ধারমানিক নদীর মোহনার পূর্ব দিকে লেম্বুর চর আর পশ্চিম দিকে রয়েছে ফাতরার চরের বিশাল বনাঞ্চল।

ভৌগোলিক ভাবে বরগুনা জেলায় বাগানটির অবস্থান থাকলেও কুয়াকাটায় আগত পর্যটকরা বিনোদনের জন্য সেখানে ট্রলার যোগে যাতায়াত করেন। কুয়াকাটা সৈকতের ৭ কিলোমিটার পশ্চিমে রয়েছে শুটকি পল্লী। সেখানে পর্যটকরা তাজা মাছ কেটে শুটকিজাত করার দৃশ্য দেখতে ভিড় জমান। সরকারিভাবে গঙ্গামতিতে ইকোপার্ক ও বিমানবন্দর করার পরিকল্পনা নেয়া হয়েছে। এ ছাড়াও কুয়াকাটা উন্নয়নের জন্য মাস্টার প্লানের কাজ চলমান।

পর্যটকরা জানিয়েছেন, ভোরে ঢাকা থেকে যাত্রা করে দুপুরের আগেই কুয়াকাটা পৌঁছে দিনভর ঘোরাঘুরি শেষে বিকেলে সূর্যোদয় দেখে রাতে আবার ঢাকায় ফিরতে পেরেছেন তারা। এক সময় ঢাকা থেকে কুয়াকাটা পর্যন্ত ১২ থেকে ১৪টি ফেরি সার্ভিস ছিল। সে কারণে কুয়াকাটায় পৌছাতে ২৪ থেকে ২৪ ঘণ্টা সময় লাগতো। সর্বশেষ ভোগান্তি ছিল মাওয়া-জাজিরা পয়েন্টের ফেরি। পদ্মা সেতু নির্মিত হওয়ায় মাত্র ৫ ঘণ্টায় কুয়াকাটা পৌছতে পেরে আনন্দিত পর্যটকরা।

পদ্মা সেতুর সুফলে এবার চট্টগ্রাম, জামালপুর, টাঙ্গাইল, ময়মনসিংহ, গাজীপুর, মুন্সীগঞ্জ, মানিকগঞ্জ সহ বিভিন্ন জেলার পর্যটকরা আসছেন সাগরকন্যা কুয়াকাটার সৌন্দর্য উপভোগ করতে। ১৩টি দর্শনীয় স্পট দেখতে হাজার হাজার দর্শনার্থীদের উপচেপড়া ভিড় লক্ষ্য করা গেছে। সমুদ্রে ঢেউয়ের তালে তালে দাবড়িয়ে বেড়াচ্ছে তরুণ তরুণীসহ নানান পেশার মানুষ। সমুদ্রে গোসল, ফুটবল খেলাসহ নানা আনন্দ উল্লাসে মেতে আছে পর্যটকরা।

একাধিক পর্যটকরা জানান, আগে কেবল মাত্র ভোগান্তির জন্যই সাগরকন্যায় আসার আনন্দ ধুলোয় মিশে যেতো। সূর্যোদয় কিংবা সূর্যাস্ত কোনোটাই দেখা সম্ভব হতো না। পরিবার-পরিজন নিয়ে কুয়াকাটায় বেড়াতে আসা একাধিক ব্যক্তি জানান, এবার ছুটির মধ্যেই পরিবার নিয়ে সাগরকন্যার সৌন্দর্য উপভোগ করতে পেরেছেন। ঈদ উল আযহার দিন বিকেল থেকেই কুয়াকাটার একাধিক পর্যটন স্পট পর্যটকদের পদচারণায় মুখরিত হয়ে উঠেছে। দীর্ঘ ১৮ কিলোমিটারের সমুদ্র সৈকতে রাখাইনদের ইতিহাস-ঐতিহ্যের সঙ্গে সম্পৃক্ত বিভিন্ন প্রাগৈতিহাসিক স্থাপনা নিদর্শন দেখতে গভীর রাত পর্যন্ত ভিড় পরিলক্ষিত হচ্ছে। পর্যটকদের চাপে এবার শতভাগ হোটেল-মোটেল বুকিং হয়ে যাওয়ায় অনেকেই ৪/৫ কিলোমিটার দূরবর্তী হোটেলে কক্ষ ভাড়া নিচ্ছেন।

বাংলাদেশ ট্যুরিজম বোর্ডের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা (অতিরিক্ত দায়িত্ব) আবু তাহের মুহাম্মদ জাবের প্রতিদিনের সংবাদকে বলেন, আমরা সারা দেশে ১ হাজার ১০০ ট্যুরিস্ট অ্যাট্রাকশন পয়েন্ট আইডেন্টিফাই করেছি। এর মধ্যে কয়েকটি গুরুত্বপূর্ণ অ্যাট্রাকশন পয়েন্টের আর্কিটেকচারাল ডিজাইন আমরা করব। আমরা ইনভেস্টমেন্ট প্ল্যানও করব।

মুহাম্মদ জাবের আরো বলেন, দক্ষিণাঞ্চলকে আমরা প্রায়োরিটি দেব, কারণ ওখানে যাওয়াটা আগে কষ্টসাধ্য ছিল। এখন সেটা সহজ হয়েছে। কুয়াকাটা, পিরোজপুরসহ বরিশালের বিভিন্ন অঞ্চলকে আমরা অগ্রাধিকার দেব। এখানে কিছু নতুন ট্যুরিস্ট অ্যাট্রাকশন তৈরির জন্য কাজ করছি। এর মধ্যে আছে সোনাদ্বীপ, আরেকটা সোনারচর। ১০-১৫ দিন আগে আমরা দেখে এসেছি। কীভাবে এগুলো ডেভেলপ করা যায়, সেটা নিয়ে কাজ করছি।

তবে পর্যটন ব্যবসায়ী ও প্যাসিফিক এশিয়া ট্রাভেল অ্যাসোসিয়েশন (পাটা) বাংলাদেশ চ্যাপ্টারের মহাসচিব মো. তৌফিক রহমান মনে করছেন, দক্ষিণাঞ্চলে পর্যটনকেন্দ্রিক সুশৃঙ্খল ব্যবস্থাপনাই এখন সবচেয়ে বড় চ্যালেঞ্জ। তিনি বলেন, এতদিন মূল সমস্যাটা ছিল যাতায়াত। আরেকটা বড় সমস্যা থাকার ভালো ব্যবস্থাপনা নেই। এটা নিয়ে ভাবতে হবে। ভালো খাবারের জায়গাও নেই। ট্যুরিস্ট অ্যাট্রাকশনের জন্য এসব ক্ষেত্রেই সুশৃঙ্খল ব্যবস্থাপনা থাকতে হবে।


আরও খবর



কু‌মিল্লায় বিয়ের অনুষ্ঠানে যাওয়ার পথে ট্রাক চাপায় প্রাণ গেল দাদি নাতির

প্রকাশিত:শনিবার ১০ সেপ্টেম্বর ২০২২ | হালনাগাদ:রবিবার ০২ অক্টোবর 2০২2 |
Image

কুমিল্লা ব্যুরো ঃ

বিয়ের অনুষ্ঠানে যাওয়ার সময় কুমিল্লা দে‌বিদ্বা‌রে  ট্রাক চাপায় স্কুল শিক্ষিকাসহ একই পরিবারের ২ জন নিহত হয়েছেন। দুর্ঘটনায় সিএনজি অটোরিকশা চালকসহ ৪ জন আহত হয়েছেন।                      শুক্রবার (৯ সেপ্টেম্বর) দুপুরে কু‌মিল্লা -সি‌লেট আঞ্চ‌লিক মহাসড়কের দেবিদ্বারের পৌর এলাকার শাইলচর এলাকায় এ দুর্ঘটনা ঘটে। 

পু‌লিশ ও স্থানীয়রা জানায় কুমিল্লা-সিলেট আঞ্চলিক মহাসড়কের দেবিদ্বার পৌর এলাকার সাইলচর এলাকায় আসলে পেছন থেকে আসা দ্রুতগামী একটি ট্রাকের চাপায় সিএনজিঅ‌টো‌রিক্সাটি দুমড়ে মুচড়ে যায়। এসময় সিএনজি চালকসহ ৬ যাত্রী গুরুতর আহত হন।

আহত ৬ জনকে উদ্ধার করে প্রথমে দেবিদ্বার উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে এবং পরে কুমিল্লা মেডিকেজ কলেজ হাসপাতালে স্থানান্তরিত করা হয়। কুমেক হাসপাতালে নেয়ার পর শিক্ষিকা হাজেরা বেগম ও তার নাতী আবিরের মৃত্যু হয়।আশংকাজনক অবস্থায় বিকেলে বজলুর রহমানকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়। 

নিহতরা হলেন, দেবিদ্বার পৌর এলাকার বারেরা গ্রামের নিজাম উদ্দিন ফকির বাড়ির বজলুর রহমানের স্ত্রী ও উপজেলার ধামতী সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষিকা হাজেরা বেগম (৪০) ও  হাজেরা বেগমের পৌত্র (নাতি) আবির (৫)। 

আহতরা হলেন, নিহত হাজেরা বেগমের স্বামী বজলুর রহমান (৬৫), মেয়ে মনিরা আক্তার (১৪), নাতি আশিক (৭) ও সিএনজি অটোরিকশার চালক দেবিদ্বার পৌর এলাকার উত্তর ভিংলাবাড়ি গ্রামের আব্দুল আলীমের ছে‌লে শান্ত (২০)।

স্থানীয় মারুফ আহ‌মেদ জানান,  দুপুরে একই পরিবারের ৫জন সিএনজি যোগে উপজেলার বড়শালঘর গ্রামে একটি বিয়ের অনুষ্ঠানে যাচ্ছিল। 

এ ব্যাপারে মীরপুর হাইওয়ে পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. কামাল উদ্দিন জানান, পুলিশ ঘটনাস্থল থে‌কে দূর্ঘটনায় কবলিত দুমড়ে মুচড়ে যাওয়া সিএনজি ও ঢাকা-মেট্রো-ট-১৬৫৫১৮ নম্বরের ট্রাকটি হেফাজতে নিয়ে আসা হয়েছে। 

কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের জরুরী বিভাগের ডাঃ নাফিস ইমতিয়াজ উদ্দিন আহমেদ বলেন, হাসপাতা‌লে আনার আ‌গেই দাদি হাজেরা ও নাতি আবির মারা গে‌ছে । চাল‌কের অবস্থার অবন‌তি হ‌লে  তাকে ঢাকায় পাঠা‌নো হ‌য়ে‌ছে


আরও খবর



হিমালয় জয় বাংলার মেয়েদের

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ২০ সেপ্টেম্বর ২০22 | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ০৬ অক্টোবর ২০২২ |
Image

আজ তো বিশেষণ দেওয়ারই দিন। হিমালয়ঘেঁষা নেপালের দশরথ স্টেডিয়ামে ইতিহাস গড়েছে বাংলার মেয়েরা। স্বাগতিক নেপালকে ৩-১ গোলে উড়িয়ে দিয়ে প্রথমবারের মতো সাফ নারী ফুটবল চ্যাম্পিয়নশিপের শিরোপা জিতে নিয়েছেন সাবিনারা।

চোটে থাকা সত্ত্বেও শিরোপা লড়াইয়ের ম্যাচে স্বপ্নার ওপর ভরসা রেখেছিলেন বাংলাদেশের কোচ গোলাম রাব্বানী ছোটন। ফাইনালে নেপালের বিপক্ষে শুরুর একাদশে মাঠে নামিয়েছেন স্বপ্নাকে। তবে দুর্ভাগ্য স্বপ্নার। ইনজুরির কারণে ম্যাচের ১০ মিনিটের মধ্যে দলের অন্যতম সেরা স্ট্রাইকারকে উঠিয়ে শামসুন্নাহার জুনিয়রকে মাঠে নামান কোচ। তার এই সিদ্ধান্তকে সঠিক প্রমাণ করতে মাত্র ৪ মিনিট সময় নেন শামসুন্নাহার।

শামসুন্নাহার-কৃষ্ণার দারুণ ফিনিশারে নেপালের জালে ৩ গোল দিয়ে ছিনিয়ে আনলেন শিরোপা। এই জয়টা তাদেরই প্রাপ্য। সাফের এই ঐতিহাসিক জয়কে কোনোভাবেই আর অবিশ্বাস্য বলা চলে না। নেপালের দশরথ স্টেডিয়ামে ১৫ হাজার দর্শককে স্তব্ধ করে, তাদের সাক্ষী রেখে শামসুন্নাহার-কৃষ্ণারা সেখানকার আকাশে-বাতাসে লিখে দিয়ে এলেন দক্ষিণ এশিয়ার সেরা নারী ফুটবল দল আমরাই।

ম্যাচের প্রথম মিনিটেই আক্রমণে যায় বাংলার মেয়েরা। ডি-বক্সের বাইরে থেকে মারিয়া মান্ডার জোরালো শট আটকে দেন নেপাল গোলরক্ষক। ফিরতি শটে সিরাত জাহান স্বপ্না চেষ্টা করলেও লক্ষ্যভেদ হয়নি।

ম্যাচের ১০ মিনিটে গর্জে ওঠা দশরথ স্টেডিয়ামে নীরবতা নামিয়ে আনেন শামসুন্নাহার জুনিয়র। চোট পাওয়া স্বপ্নার জায়গায় মাঠে নেমে মনিকা চাকমার ক্রস থেকে ডান পায়ের দারুণ ভলিতে গোল করেন তিনি। এই টুর্নামেন্টের প্রথমবারের মতো গোল হজম করে স্বাগতিক নেপাল।

পিছিয়ে পড়ে গোলের জন্য মরিয়া হয়ে উইং ধরে বেশ ক’বার আক্রমণে উঠেছিল নেপাল। এদিন গোলরক্ষক রুপনা চাকমা ও ডিফেন্ডারদের কঠিন পরীক্ষাই নিয়েছেন নেপালি ফরওয়ার্ডরা। তবে বিপদ হতে দেননি তারা। ৩৫ মিনিটের মাথায় নেপালের আনিতা বাসনেতের দারুণ এক ফ্রিকিক দুর্দান্ত রিফ্লেক্সে রুপনা ঠেকিয়ে দিলে কর্নার পায় নেপাল।

সেই কর্নার থেকে জটলার মধ্য দিয়ে লক্ষ্যভেদের চেষ্টা করেও ব্যর্থ নেপাল। গোললাইন থেকে বল ক্লিয়ার করেন ডিফেন্ডার মাসুরা পারভীন। ঝিমিয়ে পড়া দশরথ স্টেডিয়াম আবারও জেগে ওঠে তখন। তবে ৪২ মিনিটে কৃষ্ণা রানীর বাঁ-পায়ের দারুণ এক ফিনিশিংয়ে আবারও নীরবতা নেমে আসে গ্যালারিতে। নেপালি ডিফেন্ডারদের ভুলকে কাজে লাগিয়ে অধিনায়ক সাবিনার বল বাড়ান ডি-বক্সে। সেখান থেকে বাঁম পায়ের দারুণ এক ফিনিশিংয়ে ব্যবধান দ্বিগুণ করেন কৃষ্ণা। ২-০ গোলে এগিয়ে থেকে প্রথমার্ধ শেষ করে বাংলাদেশ।

টানা আক্রমণের ফল নেপাল পেয়েছে ম্যাচের ৭০ মিনিটে। আনমার্কড অবস্থায় থাকা আনিতার জোরালো শটে প্রথম গোলের দেখা পায় নেপাল কিন্তু সেটা কেবল ব্যবধানই কমায়।

ঘুরে দাঁড়াতে প্রত্যয়ী নেপালের জালে তৃতীয় গোলটা দেন কৃষ্ণা। কাউন্টার অ্যাটাকে ম্যাচের ৭৭ মিনিটে মনিকার বাড়ানো থ্রু ঠাণ্ডা মাথার দারুণ ফিনিশিংয়ে নিজের দ্বিতীয় গোল করেন এই কৃষ্ণা। ৩-১ গোলে জয় নিয়ে মাঠ ছাড়েন সাবিনারা।



আরও খবর

নারী এশিয়া কাপ ক্রিকেট

রবিবার ০২ অক্টোবর 2০২2

নারী এশিয়া কাপ ক্রিকেট

শনিবার ০১ অক্টোবর ২০২২




শৃঙ্খলা ফেরাতে বাসে ই-টিকিটিং

প্রকাশিত:শনিবার ২৪ সেপ্টেম্বর ২০২২ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ০৬ অক্টোবর ২০২২ |
Image

মইনুল ইসলাম মিতুল : গণপরিবহনে ভাড়া নিয়ে নৈরাজ্য দীর্ঘদিনের। সরকার ভাড়া নির্ধারণ করে দিলেও তা মানত না কোনো গণপরিবহন। আর এ বিষয়ে যাত্রীদের অভিযোগেরও অন্ত ছিল না। শুধু রাজধানী নয়, দেশজুড়েই একই অবস্থা। ছিল বাড়তি ভাড়া আদায়ের সীমাহীন নৈরাজ্য। যে যেভাবে পেরেছে জিম্মি করে যাত্রীদের কাছ থেকে আদায় করেছে দ্বিগুণ-তিনগুণ অতিরিক্ত ভাড়া। তবে এবার যাত্রীদের জন্য সুখবর নিয়ে এলো পরিবহন সংশ্লিষ্টরা। রাজধানীতে অতিরিক্ত ভাড়া আদায় বন্ধে চালু হয়েছে ই-টিকিটিং ব্যবস্থা। কয়েকটি রুটে মিরপুর সুপার লিংক, পরিস্থান, প্রজাপতি ও বসুমতিসহ বেশ কয়েকটি বাস পরীক্ষামূলকভাবে শুরু করেছে এ কার্যক্রম। এ ব্যবস্থা পুরোপুরি কার্যকর হলে সাধারণ যাত্রীদের গুনতে হবে না অতিরিক্ত ভাড়া। তাই নতুন এ সিস্টেমকে স্বাগত জানিয়েছেন যাত্রীরা।

টিকিট বিক্রেতারা বলছেন, ই-টিকিটিং চালু হওয়ায় যাত্রী হয়রানি কমার পাশাপাশি ভাড়ারও সমন্বয় করা হচ্ছে। জনসাধারণের সুবিধার্থে পর্যায়ক্রমে সব রুট ও বাসেই ই-টিকিটিং চালুর দাবি জানান যাত্রীরা।

এর আগে রাজধানীর অভ্যন্তরীণ পরিবহন ব্যবস্থায় যাত্রী ভোগান্তি নিরসনে চালু হচ্ছে ই-টিকিটিং ব্যবস্থা চালুর উদ্যোগ নেওয়া হয়। গত ১ সেপ্টেম্বর ঢাকা সড়ক পরিবহন মালিক সমিতির সঙ্গে ই-টিকিটিং সহযোগী প্রতিষ্ঠান যাত্রী সার্ভিসেস লিমিটেডের এ-সংক্রান্ত চুক্তি সই হয়।

সূত্র জানিয়েছে, এটি চালু হওয়ায় যাত্রীরা বাসের ভেতরে টাকা দিয়ে কন্ডাক্টরের কাছে থাকা মেশিন থেকে টিকিট সংগ্রহ করতে পারছেন। টিকিটের গায়ে যাত্রার বিবরণ থেকে টাকার পরিমাণ সবই উল্লেখ থাকায় অতিরিক্ত ভাড়া আদায়ের কোনো সুযোগ থাকল না।

এ পাইলট প্রকল্পে প্রজাপতি পরিবহন, পরিস্থান পরিবহন, অছিম পরিবহন, নূর-ই মক্কা পরিবহন ও বসুমতির বাসে ই-টিকিট সুবিধা চালু হলো। এর ফলে রাজধানীর সড়কে ফিরতে পারে শৃঙ্খলা।



আরও খবর

শিগগিরই বাড়ছে বিদ্যুতের দাম

মঙ্গলবার ০৪ অক্টোবর ২০২২




খন্দকার রুহুল আমিন এনআরবি ব্যাংকের

রিস্ক ম্যানেজমেন্ট কমিটির চেয়ারম্যান পুনর্নির্বাচিত

প্রকাশিত:শুক্রবার ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২২ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ০৬ অক্টোবর ২০২২ |
Image

নোয়াখালী প্রতিনিধিঃ অনুপ সিংহ,

এনআরবি ব্যাংকের পরিচালনা পর্ষদের ০৭ আগস্ট অনুষ্ঠিত সভায় খন্দকার রুহুল আমিন সর্বসম্মতিক্রমে বোর্ড রিস্ক ম্যানেজমেন্ট কমিটির চেয়ারম্যান পুনর্নির্বাচিত হন।

তিনি নোয়াখালী জেলার সোনাইমুড়ী উপজেলার চেয়ারম্যান হিসেবে দায়িত্বে চলমান রয়েছেন। তিনি দেশে ও বিদেশে একজন দক্ষ ও সফল ব্যবসায়ী। বর্তমানে তিনি আমেরিকায় অবস্থিত ফাদার রিয়ালিটি কর্পোরেশন, সুরমা রিয়ালিটি কর্পোরেশন, আমিন রিয়ালিটি কর্পোরেশন, হরিপুর রিয়ালিটি করর্পোরেশন, বোম্বে গ্রীল, গান্ধী প্যালেস, আমিন ইন্ডিয়ান রেস্টুরেন্ট, রোশাই ইন্ডিয়ান রেস্টুরেন্ট এবং ইন্ডিয়ান প্যালেস-এর স্বত্ত্বাধিকারী।

আরো রয়েছেন আমিন বাংলাদেশে হোটেল নিউ ইয়র্ক, ক্যাফে নিউ ইয়র্ক, আমিন সিএনজি ফিলিং স্টেশন, ঢাকা নিউ ইয়র্ক এ্যাগ্রো ফিসারিজ এবং খন্দকার টাওয়ার-এর স্বত্ত্বাধিকারী। সামাজিক উন্নয়নে জনহিতকর কর্মকান্ডে তিনি সক্রিয়ভাবে জড়িত।


আরও খবর

লিটারে ১৪ টাকা কমল সয়াবিন তেলের দাম

মঙ্গলবার ০৪ অক্টোবর ২০২২




বিষখালি নদীতে হঠাৎ ভাঙ্গনে ৬টি দোকান বিলীন, এলাকায় আতঙ্ক

প্রকাশিত:সোমবার ১২ সেপ্টেম্বর ২০২২ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ০৬ অক্টোবর ২০২২ |
Image

ঝালকাঠি প্রতিনিধি ঃ

ঝালকাঠির রাজাপুরের বিষখালি নদীতে হঠাৎ নদী ভয়াবহ ভাঙ্গন দেখা দিয়েছে। এতে ছয়টি দোকানঘর নদীর ভাঙনে বিলীন হয়েছে। এদের মধ্যে একটি মুদীমনোহারি, একটি ঋষি ও বাকি গুলো চায়ের দোকান ছিল। সোমবার দুপুরে উপজেলার মঠবাড়ি ইউনিয়নের বিশখালী নদী সংলগ্ন বাদুরতলা বাজারে এ ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় ওই এলাকায় ভাঙন আতঙ্ক বিরাজ করছে। ঘটনার পর বিকালে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন। ক্ষতিগ্রস্ত দোকান মালিকরা হলো নাসির হাওলাদার, জুয়েল শরীফ, শাহজাহান শরীফ, জামাল হাওলাদার, আবু খলিফা ও বাবুল ঋষি। প্রত্যক্ষদর্শী মো. রুহুল আমিন, তরিকুল ইসলাম সুমন ও আব্দুল গফুর জানায়, দুপুরে হঠাৎ বিশখালী নদীতে ভাঙ্গন দেখা দেয়। এতে কয়েকটি দোকান নিয়ে মাটি দেভে পানিতে ভেসে যায় মালপত্রসহ দোকানগুলো। পরে স্থানীয়দের সহায়তায় নদী থেকে দোকান মালিকরা দোকানঘরও সহ মালামাল উদ্ধার করে। ততক্ষনে অনেক মালপত্র ভেসে যায়। 


মঠবাড়ি ইউপি চেয়ারম্যান শাহ জালাল হাওলাদার জানান, দীর্ঘদিন ধরেই বাদুরতলা বাজারের দোকানগুলো ভেঙে বিলীন হচ্ছে। পানি বৃদ্ধি পাওয়ায় হঠাৎ দুপুরে ৬টি দোকান বিলীন হয়ে গেছে। এখনও ওই বাজারের অনেক দোকান ঝুকিতে রয়েছে। কয়েক দফা জিও ব্যাগ ফেলেও ভাঙনরোধ করা সম্ভব হচ্ছে না। দ্রæত স্থায়ী বাধ নির্মান করা প্রয়োজন। উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা নুসরাত জাহান খান বলেন, ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে ক্ষতিগ্রস্থদের সাথে কথা বলেছি তাদের জন্য পরবর্তীতে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে।


আরও খবর