Logo
শিরোনাম

জিরো ৫জি’ আনছে ইনফিনিক্স

প্রকাশিত:বুধবার ০৯ মার্চ ২০২২ | হালনাগাদ:সোমবার ১৬ মে ২০২২ | ৩১৯জন দেখেছেন
Image

শিগগির বাজারে আসছে ইনফিনিক্সি ব্র্যান্ডের প্রথম ৫জি স্মার্টফোন ‘জিরো ৫জি’। শক্তিশালী ‘৬এনএম ৫জি চিপসেট’ এবং বাহারি ডিজাইনের এই মোবাইলটি ধীরে ধীরে সারাবিশ্বেই সহজলভ্য হবে।

গত ৮ ফেব্রুয়ারি চীনের সাংহাইতে প্রাথমিকভাবে এই ডিভাইসটি উন্মোচিত হয়। স্মার্টফোনটিতে রয়েছে ‘৬এনএম মিডিয়াটেক ডাইমেনেস্টি ৯০০ মাস্টার প্রসেসর’, ইউনি-কার্ভ ডিজাইন, ৩০এক্স আল্ট্রা জুমের ৪৮ মেগাপিক্সেল এআই ট্রিপল ক্যামেরা, ১২০ হার্টজ রিফ্রেশ রেট এবং ২৪০ হার্টজ টাচ স্যাম্পল রেট সম্বলিত ৬.৭৮” ইঞ্চির এফএইচডি+ আল্ট্রা-সম্মুথ ডিসপ্লে এবং ৩৩ ওয়াট চার্জ টেকনোলজির (টিইউভি রাইনল্যান্ড প্রযুক্তির দ্রুত ও নিরাপদ সুবিধাসম্পন্ন) ৫০০০এমএএইচ ব্যাটারি।

ইনফিনিক্স মোবিলিটির ডেপুটি প্রোডাক্ট ডিরেক্টর চার্লস ডিং বলেন, বর্তমান দ্রুত বর্ধনশীল বাজার ব্যবস্থায় ইনফিনিক্স কার্যকরী ভূমিকা রাখতে সক্ষম হচ্ছে।

একইসঙ্গে, গ্রাহকদের দিচ্ছে উচ্চ পারফরম্যান্সের ৫জি প্রযুক্তি সেবা। ‘জিরো ৫জি’ স্মার্টফোনের মাধ্যমে গ্রাহকরা আরো সহজ ও বিস্তৃতভাবে এই সুবিধা উপভোগ করতে পারবেন।

চার্লস ডিং আরও বলেন, ‌আমাদের উদ্ভাবিত প্রযুক্তির জিরো ৫জি' ব্যবহারকারীরা নান্দনিক ও বেশ হালকা এই মোবাইলে অধিকতর ভালো পারফরম্যান্স পাবেন।

পাশাপাশি তারা সাশ্রয়ী মূল্যের একটি ৫জি স্মার্টফোনে যেসব কাঙ্ক্ষিত ফিচার আশা করেন, সেসব-ই মিলবে এই ডিভাইসে।

‘৬এনএম মিডিয়াটেক ডাইমেনেস্টি ৯০০ ৫জি চিপসেট’ সম্বলিত শক্তিশালী ইনফিনিক্স ‘জিরো ৫জি’ স্মার্টফোনের মাধ্যমে ব্যবহারকারীরা দ্রুত ডাউনলোড ও গেমিং সুবিধা পাবেন।

৫জি প্রযুক্তির এই মোবাইলফোনটি ব্যাটারির সক্ষমতাও আরো বেশি সময়ে ধরে রাখে এবং ইন্টারনেট ব্যান্ডউইথ এর সামার্থ্য যাচাই করে স্বয়ংক্রিয়ভাবে গ্রাহকদের ৪জি কিংবা ৫জি সেবা প্রদান করে।


আরও খবর



‘ঘর পাওয়া মানুষের হাসি সব থেকে ভালো লাগে’

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ২৬ এপ্রিল ২০২২ | হালনাগাদ:সোমবার ১৬ মে ২০২২ | ৯৪জন দেখেছেন
Image

আশ্রয়ণ প্রকল্পের ঘর পাওয়ার পর যখন মানুষের মুখে হাসি ফোটে তখন সব থেকে বেশি ভালো লাগে বলে মন্তব্য করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

মঙ্গলবার সকালে ‘ঈদ উপহার’ হিসাবে প্রায় ৩৩ হাজার পরিবারকে আশ্রয়ণ প্রকল্পের নতুন ঘর তুলে দেওয়ার অনুষ্ঠানে তিনি এ কথা বলেন।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, আমার সব থেকে ভালো লাগে যখন দেখি মানুষ ঘর পাওয়ার পর মুখে হাসি ফুটেছে। জাতির পিতা তো দুঃখী মানুষের মুখেই হাসি ফোটাতে চেয়েছিলেন।

আশ্রয়ণ-২ প্রকল্পের তৃতীয় ধাপে দেশের ৪৯২টি উপজেলার এসব অসহায় পরিবারকে প্রধানমন্ত্রীর ‘ঈদ উপহার’ হিসাবে মঙ্গলবার বিনামূল্যে দুই শতক জমিসহ সেমি পাকা ঘর তুলে দেওয়া হয়।

গণভবন থেকে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে ঘর হস্তান্তরের অনুষ্ঠানে যুক্ত হন শেখ হাসিনা। বলেন, যে জাতি বুকের রক্ত দিয়ে স্বাধীনতা অর্জন করে সেই জাতি কখনও পিছিয়ে থাকতে পারে না। জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের আহ্বানে সাড়া দিয়ে যারা অস্ত্র তুলে নিয়ে নিজের রক্ত দিয়ে এদেশ স্বাধীন করে দিয়ে গেছেন সেই শহীদের রক্ত বৃথা যেতে পারে না।

এর আগে প্রধানমন্ত্রী কার্যালয়ের জ্যেষ্ঠ সচিব মো. তোফাজ্জল হোসেন মিয়া এক সংবাদ সম্মেলনে জানান, আশ্রয়ণ-২ প্রকল্পের আওতায় প্রথম ও দ্বিতীয় ধাপে ২ শতক জমির সঙ্গে ঘর পেয়েছেন দেশের ভূমি ও গৃহহীন প্রায় ১ লাখ ১৭ হাজার ৩২৯ পরিবার।

দেশে ভূমি ও গৃহহীন পরিবারগুলোকে পুনর্বাসনের লক্ষ্যে ১৯৯৭ সালে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয় থেকে ‘আশ্রয়ণ’ নামে প্রকল্প নেওয়া হয়। এর আওতায় ১৯৯৭ থেকে ২০২২ সাল পর্যন্ত ৫ লাখ ৭ হাজার ২৪৪টি পরিবারকে পুনর্বাসন করা হয়েছে বলে জানান সচিব।


আরও খবর



প্রাথমিক শিক্ষক নিয়োগ : গোয়েন্দা নজরদারি বাড়বে

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ১৯ এপ্রিল ২০২২ | হালনাগাদ:শনিবার ১৪ মে ২০২২ | ৮৯জন দেখেছেন
Image

আগামী ২২ এপ্রিল থেকে সারা দেশে তিন ধাপে অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে প্রাথমিক বিদ্যালয়গুলোর সহকারী শিক্ষক নিয়োগের লিখিত পরীক্ষা। এই পরীক্ষা সুষ্ঠু ও নির্বিঘে করতে জেলা প্রশাসক (ডিসি) ও বিভাগীয় কমিশনারদের নির্দেশনা দিয়েছে মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ। সম্প্রতি মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের উপসচিব মোহাম্মদ সাইফুল ইসলাম ভূঁইয়া স্বাক্ষরিত চিঠিতে এই নির্দেশনা দেয়া হয়।

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, সহকারী শিক্ষকের ৩২ হাজার ৫৭৭টি শূন্য পদে নিয়োগের জন্য প্রাথমিক শিক্ষা অধিদফতর ২০২০ সালের ২০ অক্টোবর বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করে। কিন্তু করোনা মহামারীর কারণে পরীক্ষা নেয়া সম্ভব হয়নি। ইতোমধ্যে অবসর নেয়ার কারণে আরো ১০ হাজারেরও বেশি সহকারী শিক্ষকের পদ শূন্য হয়ে পড়েছে। এতে বিদ্যালয়গুলোয় শিক্ষক ঘাটতি দেখা দিয়েছে। এ সমস্যার সমাধানে মন্ত্রণালয় আগের বিজ্ঞপ্তির শূন্য পদ ও বিজ্ঞপ্তির পরের শূন্য পদ মিলিয়ে প্রায় ৪৫ হাজার সহকারী শিক্ষক নিয়োগের সিদ্ধান্ত নিয়েছে। প্রাথমিকের ইতিহাসে এটিই এখন পর্যন্ত সবচেয়ে বড় নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি। ২০২০ সালের ২৫ অক্টোবর অনলাইনে আবেদন শুরু হয়। আবেদন করেছেন ১৩ লাখ ৯ হাজার ৪৬১ জন প্রার্থী। সে হিসাবে একটি পদের জন্য প্রতিযোগিতা হবে ২৯ প্রার্থীর মধ্যে।

শিক্ষক নিয়োগের এই লিখিত পরীক্ষা সুষ্ঠুভাবে সম্পন্ন করতে এর আগে গত ১২ এপ্রিল আন্তঃমন্ত্রণালয় সভা করেছে প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়।

প্রাথমিক ও গণশিক্ষা প্রতিমন্ত্রী মো: জাকির হোসেনের সভাপতিত্বে মন্ত্রণালয়ের সচিব মো: হাসিবুল ইসলাম, প্রাথমিক শিক্ষা অধিদফতরের মহাপরিচালক আলমগীর মুহাম্মদ মনসুরুল আলম, মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের অতিরিক্ত সচিব সাবিরুল ইসলাম, জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব তোফাজ্জল হোসাইন, এনএসআইয়ের অতিরিক্ত পরিচালক অসিত বরণ সরকার, জননিরাপত্তা বিভাগের উপসচিব শেখ ছালেহ আহাম্মদ উপস্থিত ছিলেন ।

সভায় প্রাথমিক শিক্ষা অধিদফতরের মহাপরিচালক স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়কে নিয়োগ পরীক্ষা সুষ্ঠুভাবে সম্পন্ন করার লক্ষ্যে দেশের সব ডিআইজি, এসপিদের নিয়ে সভা করা এবং প্রয়োজনীয় দিকনির্দেশনা প্রদানের উদ্যোগ গ্রহণ করার জন্য বিশেষভাবে অনুরোধ জানান। তা ছাড়া প্রশ্নপত্র প্রণয়ন স্থানে এবং পরীক্ষা কেন্দ্রগুলোতে মোবাইল নেটওয়ার্কিং সিস্টেম জ্যামারের ব্যবস্থা নেয়ার জন্য বিটিআরসিকে অনুরোধ জানান।

মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের অতিরিক্ত সচিব সাবিরুল ইসলাম জানান যে, রমজান এবং ট্রাফিক পরিস্থিতি বিবেচনায় নিয়ে পর্যাপ্ত সময় হাতে রেখে ওএমআর শিট ও প্রশ্নপত্রের ট্রাংক এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেটদের তত্ত্বাবধানে সরবরাহ করতে অনুরোধ করেন।

এনএসআইয়ের অতিরিক্ত পরিচালক অসিত বরণ সরকার জানান, সুষ্ঠুভাবে পরীক্ষা সম্পাদনের লক্ষ্যে গোয়েন্দা নজরদারি অব্যাহত থাকবে। তিনি প্রতিটি কেন্দ্রে মেটাল ডিটেকটর স্থাপন এবং মহিলা পরীক্ষার্থীদের কানে পরিহিত কোনো ডিভাইস আছে কি না তা কঠোরভাবে যাচাই করার বিষয়ে গুরুত্বারোপ করেন। তা ছাড়া প্রশ্নপত্র ফাঁস এবং প্রশ্নপত্র ফাঁসের গুজব প্রতিরোধে তাৎক্ষণিকভাবে স্থানীয় প্রশাসন কর্তৃক তদন্তপূর্বক প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের ওপর গুরুত্বারোপ করেন।
পরীক্ষা সুষ্ঠুভাবে গ্রহণের জন্য আন্তঃমন্ত্রণালয় বৈঠকে ১১টি সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হয়। সিদ্ধান্তের মধ্যে রয়েছে, সহকারী শিক্ষক নিয়োগের লিখিত পরীক্ষা সুষ্ঠুভাবে গ্রহণের প্রয়োজনীয় সহযোগিতা প্রদান এবং পরীক্ষাসংক্রান্ত সার্বিক কার্যক্রমে অংশগ্রহণের নিমিত্ত বিভাগীয় কমিশনার ও জেলা প্রশাসকদেরকে নির্দেশনা প্রদানের জন্য মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করবেন।পরীক্ষার দিন প্রতিটি পরীক্ষা কেন্দ্রে একজন করে ম্যাজিস্ট্রেট নিয়োগ এবং প্রশ্নপত্র ও অন্যান্য ডকুমেন্ট সংবলিত ট্রাংক ঢাকা হতে গ্রহণ, জেলার ট্রেজারিতে সংরক্ষণ এবং উত্তরপত্র ঢাকায় প্রেরণের জন্য জেলা প্রশাসকরা প্রয়োজনীয়সংখ্যক ম্যাজিস্ট্রেট নিয়োগের ব্যবস্থা গ্রহণ করবেন। কোনো জেলায় পর্যাপ্তসংখ্যক ম্যাজিস্ট্রেট না থাকলে বিভাগীয় কমিশনাররা প্রয়োজনীয়সংখ্যক ম্যাজিস্ট্রেট নিয়োগ দিতে পারেন এবং সুপ্ত ম্যাজিস্ট্রেরিয়াল ক্ষমতাসম্পন্ন কর্মকর্তাদের ক্ষমতা পুনরুজ্জীবিত করার জন্য মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ, জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয় প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নেবেন।

পরীক্ষার দিন প্রতিটি পরীক্ষা কেন্দ্রে প্রয়োজনীয়সংখ্যক পুলিশ ফোর্স (মহিলা কেন্দ্রে মহিলা পুলিশসহ) নিয়োগের জন্য জননিরাপত্তা বিভাগ ও পুলিশ অধিদফতর প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করবেন। এ ছাড়া পরীক্ষার দিন কেন্দ্রগুলোতে টহল প্রদানের জন্য প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য র্যাব মহাপরিচালক প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেবেন। যেকোনো ধরনের ইলেকট্রোনিকস কমিউনিকেটিভ ডিভাইস নিয়ে পরীক্ষার্থীরা যাতে পরীক্ষা কেন্দ্রে প্রবেশ করতে না পারে সে লক্ষ্যে প্রতিটি পরীক্ষা কেন্দ্রে মেটাল ডিটেক্টর সরবরাহ ও স্থাপন করার জন্য নিমিত্ত পুলিশ সুপারদের নির্দেশনা দেয়ার জন্য জননিরাপত্তা বিভাগ প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করবেন। পরীক্ষা চলাকালীন সময়ে সংশ্লিষ্ট এলাকায় মোবাইল নেটওয়াকিং জ্যামার স্থাপন করার নিমিত্ত বিটিআরসি প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করবেন।




আরও খবর



পরিবারের শহীদদের কবর জিয়ারত করলেন প্রধানমন্ত্রী

প্রকাশিত:বুধবার ০৪ মে ২০২২ | হালনাগাদ:সোমবার ১৬ মে ২০২২ | ৬৮জন দেখেছেন
Image

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ছোট বোন শেখ রেহানাকে সাথে নিয়ে বুধবার (৪ এপ্রিল) বনানী কবরস্থানে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের পরিবারের শহীদদের কবর জিয়ারত করেছেন।

প্রধানমন্ত্রীর সহকারী প্রেস সচিব এম এম ইমরুল কায়েস বাসস’কে জানিয়েছেন, ‘প্রধানমন্ত্রী ও তার ছোট বোন ১৯৭৫ সালের ১৫ আগস্ট ঘাতকের গুলিতে নৃশংসভাবে নিহত বঙ্গবন্ধুসহ পরিবারের সদস্যদের কবরে ফাতেহা পাঠ ও মোনাজাত করেন। তারা শহীদদের আত্মার শান্তি কামনা করেন।

কায়েস জানান, শেখ হাসিনা ও শেখ রেহানা শহীদদের কবরে গোলাপের পাপড়িও ছিটিয়ে দেন।



আরও খবর



ইন্টারনেট ডাটার মেয়াদ এখন এক বছর

প্রকাশিত:বুধবার ০৪ মে ২০২২ | হালনাগাদ:সোমবার ১৬ মে ২০২২ | ৯৮জন দেখেছেন
Image

ইন্টারনেটের ডাটা প্যাকেজের মেয়াদ নিয়ে অসন্তোষ ছিল গ্রাহকদের মধ্যে। দীর্ঘদিন ধরে দাবি ছিল ডাটার মেয়াদ অনির্দিষ্ট করার। সম্প্রতি রাষ্ট্রায়ত্ত¡ মোবাইল ফোন অপারেটর টেলিটক তাদের ইন্টারনেট ডাটার মেয়াদ অনির্দিষ্ট মেয়াদে ঘোষণা করে। এবার তাদের সাথে একই পথে হাটলো অন্য অপারেটরগুলোও। ইন্টারনেট ডেটা প্যাকেজ অল্প কয়েক দিনে শেষ করার সীমাবদ্ধতা থেকে বেরিয়ে এসে ডেটার মেয়াদ বাড়াচ্ছে মোবাইলফোন অপারেটরগুলো। মেয়াদ এক বছর পর্যন্ত নির্ধারণ করে দিয়েছে বিটিআরসি। গতকাল বৃহস্পতিবার নতুন এ ডেটা প্যাকেজগুলোর উদ্বোধন করে টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রণ সংস্থা (বিটিআরসি)।

এ ক্ষেত্রে মোবাইল ফোন অপারেটরগুলো দুই ধরনের সেবা চালু করছে- আনলিমিটেড (মেয়াদবিহীন) ডেটা প্যাকেজ ও নিরবচ্ছিন্ন মাসিক ইন্টারনেট প্যাকেজ। ডেটা প্যাকেজগুলোকে মেয়াদবিহীন বলা হলেও এগুলোর মেয়াদ মূলত এক বছর পর্যন্ত। বিটিআরসি কার্যালয়ে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে ডাক ও টেলিযোগাযোগমন্ত্রী মোস্তাফা জব্বার এসব প্যাকেজের উদ্বোধন করেন। নির্ধারিত কয়েকটি প্যাকেজসহ নতুন সেবার নানা দিক তুলে ধরেন বিটিআরসির সিস্টেমস অ্যান্ড সার্ভিস বিভাগের মহাপরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল মো. নাসিম পারভেজ।

মেয়াদবিহীন (এক বছর) ডেটা প্যাকেজের মধ্যে রয়েছে গ্রামীণফোনের ১ হাজার ৯৯ টাকায় ১৫ জিবি ও ৪৪৯ টাকায় ৫ জিবির প্যাকেজ। রবির ৩১৯ টাকায় ১০ জিবির প্যাক। বাংলালিংকের ৩০৬ টাকায় ৫ জিবির প্যাকেজ। টেলিটকের রয়েছে দুটি বার্ষিক অফার- ৩০৯ টাকায় ২৬ জিবি, ১২৭ টাকায় ৬ জিবি।
আর নিরবচ্ছিন্ন মাসিক ইন্টারনেট প্যাকেজের মধ্যে রয়েছে গ্রামীণফোনের ৩৯৯ টাকার (দৈনিক ১ জিবি পর্যন্ত) ও ৬৪৯ টাকার (দৈনিক ২ জিবি পর্যন্ত) প্যাকেজ। গ্রামীণফোনের ৩৬৫ দিনেরও (প্রতিদিন ১ জিবি পর্যন্ত) প্যাকেজ নির্ধারণ করা হয়েছে। এ ছাড়া রবির ৩০ দিন (দৈনিক সর্বোচ্চ ২ জিবি), বাংলালিংকের ৩০ দিনের (দৈনিক সর্বোচ্চ ২ জিবি) প্যাকেজ রয়েছে। টেলিটকের ৩০ দিনের চারটি প্যাকেজ রয়েছে, এগুলোর ব্যবহার দৈনিক যথাক্রমে ১, ২, ৩ ও ৫ জিবি পর্যন্ত।

শেষের প্যাকেজগুলোর কোনো মূল্য সংবাদ সম্মেলনে জানানো হয়নি। ৩১ মের মধ্যে এসব প্যাকেজ চালুর নির্দেশনা দিয়েছে বিটিআরসি। মো. নাসিম পারভেজ বলেন, এটি শুধু ডেটা সেবা প্রদানের একটি বিশেষ প্যাকেজ। এর অধীন কোনো অফার (ভয়েজ, এসএমএস, সোশ্যাল প্যাক) থাকবে না। তবে আগে মেয়াদ শেষ হওয়ার সময় ডেটা উদ্বৃত্ত থাকলে কিছু ক্ষেত্রে ডেটা ফরোয়ার্ডের (ডেটা ফেরত) সুবিধা থাকলেও নতুন প্যাকেজে সেটা থাকছে না।

প্যাকেজের নামকরণে আনলিমিটেড ও মেয়াদবিহীন শব্দগুলো থাকলেও কারিগরি সীমাবদ্ধতার কারণে সর্বোচ্চ মেয়াদকাল ১ বছর নির্ধারণ করা হয়েছে বলে জানান মো. নাসিম পারভেজ। তিনি বলেন, নির্দিষ্ট মেয়াদে ডেটা থাকলে তা অপচয় হওয়ার আশঙ্কা থাকে। দীর্ঘ মেয়াদে ব্যবহারের সুযোগ থাকলে এ সমস্যা হবে না।
ডাক ও টেলিযোগাযোগমন্ত্রী মোস্তাফা জব্বার বলেন, ইন্টারনেট ব্যবহারে সীমাবদ্ধতা তুলে নিলে ব্যবহারের স্বাধীনতা থাকে। ইন্টারনেট ব্যবহারে জনগণের স্বাধীনতাকে সর্বোচ্চ গুরুত্ব দিতে হবে। শুধু সেবা স¤প্রসারণ নয়, গুণগত মান ঠিক করতে হবে। বর্তমান সেবায় মানুষ সন্তুষ্ট নয়।

সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের উত্তরে বিটিআরসি চেয়ারম্যান শ্যাম সুন্দর সিকদার বলেন, বিটিআরসি কখনো অপারেটরদের পক্ষে ছিল না, থাকবে না। জনগণ হচ্ছে বিটিআরসির সর্বোচ্চ অগ্রাধিকার। মোবাইল ফোন অপারেটরদের প্রতি বিটিআরসি তৃপ্ত না, বিরক্ত। এর পর থেকে সেবার গুণগত মান ঠিক না হলে অপারেটরদের জরিমানা করা হবে। এখন তাদের চাপ দেওয়া হচ্ছে।

অনুষ্ঠানে মহাপরিচালক (স্পেকক্ট্রাম) ব্রিগে. জেনা. মোহাম্মদ মনিরুজ্জামান জুয়েল, মহাপরিচালক (লিগ্যাল অ্যান্ড লাইসেন্সিং) আশীষ কুমার কুন্ডু মহাপরিচালক (অর্থ, হিসাব ও রাজস্ব) প্রকৌশলী মো. মেসবাহুজ্জামানসহ বিভিন্ন মুঠোফোন অপারেটরের ঊধ্বর্তন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।


আরও খবর



লাল বলে ফিরছেন আমির

প্রকাশিত:শনিবার ২৩ এপ্রিল ২০২২ | হালনাগাদ:সোমবার ১৬ মে ২০২২ | ১০৩জন দেখেছেন
Image

২০১৯ সালে হুট করেই অবসর নিয়েছিলেন টেস্ট ক্রিকেট থেকে। এরপর আর প্রথম শ্রেণির ম্যাচও খেলেননি। মনোযোগের পুরোটাই ঢেলে দেন সাদা বলের দিকে। কিন্তু হঠাৎ করেই আবার লাল বলে ফেরার ঘোষণা দিলেন মোহাম্মদ আমির। ইংলিশ ক্লাব গ্লুস্টারশায়ারের হয়ে কাউন্টিতে তিন ম্যাচ খেলবেন এই পাকিস্তানি পেসার।

আমির বলেন, ‘কাউন্টি চ্যাম্পিয়নশিপ দারুণ এক প্রতিযোগিতা এবং গ্লুস্টারশায়ারের খেলতে তর সইছে না। ইংলিশ কন্ডিশনে খেলতে ভালোবাসি আমি এবং খুব ভালো লাগছে এখানে এসে। তাই আশা করছি, দলের হয়ে ভালো পারফরম করতে পারব।’

মূলত আরেক পাকিস্তানি পেসার নাসিম শাহর ইনজুরিই সুযোগ করে দিয়েছে আমিরকে লাল বলে ফেরার। গ্লুস্টারশায়ারের হয়ে প্রথম ম্যাচ খেলতে নেমেই ইনজুরিতে পড়েন নাসিম। কাঁধের চোটের কারণে এক মাস মাঠের বাইরে থাকবেন ডানহাতি এই পেসার।


আরও খবর