Logo
শিরোনাম

সবজির আড়তে ভোক্তা অধিকারের অভিযান

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ৩০ আগস্ট ২০২২ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ০১ ডিসেম্বর ২০২২ |
Image

রাজধানীর কারওয়ান বাজারের সবজির আড়তে বিশেষ অভিযান চালিয়েছে জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তর। সোমবার মধ্যরাতে সংস্থাটির তিনজন সহকারী পরিচালকের নেতৃত্বে চালানো এ অভিযান ছিল কার্যত নিষ্ফল। মাত্র একটি পাইকারি কাঁচা মরিচের মালিককে পাঁচ হাজার টাকা জরিমানা করে তোপের মুখে পড়েন তারা।

দুই ঘণ্টা ধরে চলা এ অভিযানে সংস্থাটির কর্মকর্তারা বেশ কিছু পাইকারি দোকানে সবজি কেনার কাগজপত্র তল্লাশি করেন । তবে অধিকাংশ দোকানিই তেমন কোন রশিদ বা ক্যাশমেমো দেখাতে পারেননি। তারা বলেন, খুচরা বিক্রেতারা এখান থেকে পাইকারি দরে সবজি কিনে ভোক্তাদের কাছে বেচেন দ্বিগুণ দরে। তাই তারা রশিদ নিতে চান না। ভোক্তা অধিকারের কর্মকর্তারা জানান, শিগগিরই খুচরা-পাইকারি দুই বাজারে অভিযানের পাশাপাশি সংশ্লিষ্ট বাজার কমিটির সাথেও বৈঠক করবেন।

 


আরও খবর

ই-টিকেটিংয়ে কমেছে ভাড়ার নৈরাজ্য

মঙ্গলবার ২৯ নভেম্বর ২০২২

ই-টিকেটিংয়ে বন্ধ অতিরিক্ত ভাড়া

শুক্রবার ২৫ নভেম্বর ২০২২




এবার হবে 'ক্যাশলেস সোসাইটি' : সজীব ওয়াজেদ জয়

প্রকাশিত:রবিবার ১৩ নভেম্বর ২০২২ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ০১ ডিসেম্বর ২০২২ |
Image

বিদেশিদের সাহায্য ছাড়াই ডিজিটাল বাংলাদেশের পরিকল্পনা ও বাস্তবায়নের পুরোটাই নিজেদের শ্রম ও মেধার মাধ্যমে হয়েছে বলে জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রীর তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তিবিষয়ক উপদেষ্টা সজীব ওয়াজেদ জয়।

রেডিসন ব্লু ওয়াটার গার্ডেনে এই অনুষ্ঠানের উদ্বোধন করা হয়।সজীব ওয়াজেদ জয় জানান, এবারের লক্ষ্য ক্যাশলেস সোসাইটি করা। আবার আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় আসলে দেশের শতভাগ মানুষের ব্যাংক অ্যাকাউন্ট থাকবে বলেও জানান সজীব ওয়াজেদ জয়। বিনিময় সেবা ব্যবহার করে কোনো ঝামেলা ছাড়াই সহজে ও দ্রুত লেনদেন করতে পরবে। এ ক্ষেত্রে শুধু অন্যের ভার্চুয়াল আইডি দিলেই চলে যাবে টাকা। নাম, ব্যাংক বা অ্যাকাউন্ট নম্বর দেওয়ারও প্রয়োজন হবেআ বলে জানান তিনি।  


আরও খবর

নওগাঁয় বেগুন গাছে টমেটো চাষে সফল কৃষক বাদল

বৃহস্পতিবার ০১ ডিসেম্বর ২০২২

কাগজ সংকটে বই প্রকাশ অনিশ্চিত

বৃহস্পতিবার ০১ ডিসেম্বর ২০২২




বাঘাইছড়ির সাজেকে সশস্ত্র সন্ত্রাসীদের গুলিতে জেএসএস সমর্থক নিহত

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ০১ ডিসেম্বর ২০২২ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ০১ ডিসেম্বর ২০২২ |
Image

উচিংছা রাখাইন কায়েস, রাঙ্গামাটি ঃ

রাঙ্গামাটির বাঘাইছড়ি উপজেলার সাজেক ইউনিয়নের দূর্গম নিউলংকর দাড়ি পাড়া গ্রামের মিড পয়েন্ট এলাকায় সশস্ত্র সন্ত্রাসীদের গুলিতে সুখেন চাকমা (২০) পিতা-মঙ্গল চাকমা নিহত হয়েছে। এই ঘটনায় সজীব চাকমা (২২) পিতা-বিধুমঙ্গল চাকমা নামে আরও এক যুবক পায়ে গুলি বৃদ্ধ হয়ে আহত হয়েছে। ঘটনার পর পরই আহত সজীব চাকমাকে উদ্ধার করে গ্রামবাসীরা হাসপাতালে নিয়ে আসে।

বুধবার (৩০ নভেম্বর) সকাল ৯টার দিকে এই ঘটনা ঘটে বলে নিশ্চিত করেন, সাজেক থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) নুরুল আলম।

আহত ও নিহত দুজনেই পেশায় মোটরসাইকেল চালক ও সম্পর্কে চাচাতো ভাই বলে জানা গেছে। পাহাড়ের আঞ্চলিক সংগঠন জনসংহতি সমিতি (জেএসএস) এর সমর্থক বলে স্থানীয় গ্রামবাসীরা জানান। এই ঘটনার জন্য পাহাড়ের আরেক আঞ্চলিক সংগঠন ইউনাইটেড পিপলস ডেমোক্রেটিক ফ্রন্ট (ইউপিডিএফ) কে দায়ী করেছেন জেএসএস সন্তু বাঘাইছড়ি উপজেলার সাংগঠনিক সম্পাদক ত্রিদিপ চাকমা। আমরা এই ঘটনায় তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাচ্ছি।

এদিকে ইউনাইটেড পিপলস ডেমোক্রেটিক ফ্রন্ট (ইউপিডিএফ) সাজেক অঞ্চলের সমন্বয়ক আর্জেন্ট চাকমা এই ঘটনার সাথে তাদের দলের কোন সম্পর্ক নেই বলে জানিয়েছেন এবং নিউলংকর এলাকায় ইউপিডিএফ এর কোন কর্মকান্ড নেই বলে দাবি করেন। এটি তাদের অভ্যন্তরীণ বিষয় বলে জানান তিনি।


বাঘাইছড়ি ও সাজেক থানার সার্কেল এএসপি, সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার আব্দুল আওয়াল ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, আমরা সংবাদ পাওয়ার পরপরই এলাকায় টহল জোরদার করা হয়েছে। মরদেহ উদ্ধারসহ আইনি ব্যবস্থা নেয়ার প্রক্রিয়া শুরু করেছি। তবে এলাকাটি খুবই দূর্গম। উপজেলা সদর থেকে প্রায় ৩০ কিলোমিটার দূরে, তাই একটু সময় লাগবে বলে জানান তিনি।

এদিকে আগামী ২ ডিসেম্বর পার্বত্য শান্তি চুক্তির ২৫ বছর পূর্তি উপলক্ষে বাঘাইছড়ি উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে বিশাল জনসমাবেশের প্রস্তুতি নিতে শুরু করেছে জনসংহতি সমিতি (জেএসএস)। তার দুইদিন আগে এমন ঘটনায় এলাকায় সাধারণ মানুষের মাঝে আতঙ্ক বিরাজ করছে। সমাবেশকে ঘিরে বড় সংঘাতের আশঙ্কা করছে অনেকে। ফলে প্রশাসনের পক্ষ থেকে নজরদারি বাড়ানো হয়েছে বিভিন্ন পয়েন্টে। 


আরও খবর



বিদ্যালয়ের অর্থ আত্মসাৎ সংবাদ প্রকাশের পর প্রধান শিক্ষক শোকজ

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ০৩ নভেম্বর ২০২২ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ০১ ডিসেম্বর ২০২২ |
Image

নিজস্ব প্রতিনিধি ঃ

লালমনিরহাট সদর উপজেলার ফুলগাছ উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মোঃ শাহজাহান আলী, জমি বিক্রয় করে অর্থ আত্মসাৎ সহ নানা অপরাধ কর্মকান্ডের সাথে জড়িত। এমন খবর দৈনিক ভোরের আলো পত্রিকায় প্রকাশ হলে জেলা শিক্ষা অফিসার বিদ্যালয়ে তদন্ত করেন। এতে প্রাথমিক ভাবে নানা অসঙ্গতি প্রতিয়মান হয়।

২৪ অক্টোবর দৈনিক ভোরের আলো পত্রিকায় বিদ্যালয়ের ১১০ শতক জমি বিক্রয় করে অর্থ আত্মসাৎ ও নানা রকম দূর্ণীতি করেন প্রধান শিক্ষক শাহজাহান আলী এমন অভিযোগের তথ্য প্রকাশ হয়। যা জেলা শিক্ষা অফিসার আব্দুল বারি- মহোদয়ের নজরে আসে। তারই ধারাবাহিকতায় জেলা শিক্ষা অফিসার গত ৩১ শে অক্টেবর বিদ্যালয় পরিদর্শন এ আসেন। এতে জমি সংক্রান্তসহ বিভিন্ন অসঙ্গতির প্রমান পান। পরবর্তীতে গত ২ নভেম্বর বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক শাহজাহান আলী ও করণীক মোঃ জয়নাল আবেদীনকে শোকজ করেন। যার উত্তর ৭ দিনের মধ্যে দাখিল করতে বলা হয়েছে।

কারন দর্শানো নোটিসে দেখা যায়, বিদ্যালয়টি অনুমোদনের জন্য দাখিলকৃত ৩২৯৬ নং ( হাল দাগ নং ৪১৭৯ ) দাগে স্থাপন করার কথা থাকলেও একই জমিতে স্থাপিত হয়নি, হয়েছে রেলওয়ে ও বাংলাদেশ সরকারের ত্রাণের জমিতে। সেইসাথে মৃত মোঃ জহির উদ্দিনের নিকট থেকে কবলাকৃত ৪ দাগের মোট ৪০ শতক জমিও ভোগদখল করে আসছেন এই বিদ্যালয়ের করণীক মোঃ জয়নাল আবেদীন। এ সকল জমিতে ফসল ও দোকান করে ভাড়া তুলে ভোগ করেন জয়নাল আবেদীন। এ কারনে জেলা শিক্ষা অফিসার বিদ্যালয়ের করণীক জয়নাল আবেদীনকেও শোকজ করেন। এমন ৫ টি বিষয় উল্লেখ পূর্বক প্রধান শিক্ষক শাহজাহানকে শোকজ করা হয়েছে।

এ বিষয়ে জেলা শিক্ষা অফিসার আব্দুল বারির নিকট জানতে চাইলে তিনি বলেন “পত্রিকায় খবর দেখে আমরা তদন্তে যাই এবং অসঙ্গতী দেখতে পেয়েছি, এ জন্য প্রধান শিক্ষক ও করণীক কে শোকজ করা হয়েছে।


আরও খবর



কুমিল্লায় বিএনপির বিভাগীয় গণসমাবেশ

শেখ হাসিনার অধীনে এ দেশে নির্বাচন হবে না: মির্জা ফখরুল

প্রকাশিত:শনিবার ২৬ নভেম্বর ২০২২ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ০১ ডিসেম্বর ২০২২ |
Image

কুমিল্লা ব্যুরো ঃ

সকল রাজনৈতিক দল নিয়ে একটি জাতীয় সরকার গঠনের প্রত্যাশা ব্যক্ত করে বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, শেখ হাসিনার হাসিনার পদত্যাগের আগে এ দেশে কোনো নির্বাচন হবে না। তত্ত্বাবধায়ক সরকার ছাড়া কোন নির্বাচন হবে না। নির্বাচনের পূর্বে সংসদ ভেঙ্গে দিতে হবে। নতুন নির্বাচন কমিশন গঠন করে সে নির্বাচন কমিশনের অধিনে নির্বাচন হবে।

ফখরুল বলেন, অবৈধ প্রধানমন্ত্রী, জোর করে দুইবার নির্বাচন করেছে। ’১৪ সালে কেউ ভোট দিতে যায় নাই, নির্বাচনের আগে তাদের ১৫৪ জন জয়ী হয়ে গেছেন। ’১৮-তে রাতেই ভোট শেষ। তিনি নাকি আবার নির্বাচন করবেন। আপনারা কি আবার তা

দের ভোট দিবেন? তারাও জানে, ভোট হলে জামানত থাকবে না। তাই আবার আগের কৌশলে যেতে চান। কিন্তু তা হবে না। আপনাদেরকে সাথে নিয়ে আমরা আরো দুর্বার আন্দোলন তৈরি করে সরকারকে পদত্যাগে বাধ্য করবো। এরপর জনগণের একটি সরকার আমরা গঠন করবো।

শনিবার (২৬ নভেম্বর) কুমিল্লা টাউন হল মাঠে বিএনপির বিভাগীয় গণসমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তব্য মির্জা ফখরুল এসব কথা বলেন। ফখরুল আ‌রো বলেন, প্রধানমন্ত্রী যশোরে জনসভা করেছেন, রাষ্ট্রীয় সকল সুযোগ-সুবিধা গ্রহণ করে সেখানে মানুষের কাছে ভোট চেয়েছেন, বলেছেন আবার নৌকায় ভোট দেন। এ কথা শুনে আমার আব্বাস উদ্দিনের গানের কথা মনে পড়ে গেছে ‘আগে জানলে তোর ভাঙ্গা নৌকায় উঠতাম না।’ এ দেশের মানুষও এখন সেই গাইতে শুরু করেছেন। ভুলে যান, দেশের মানুষ আর চায় না। সময় থাকতে মানে মানে চলে যান। না হয় পরিণতি ভালো হবে না।

তিনি বলেন, জীবন বাজি রেখে যুদ্ধ করে দেশ স্বাধীন করা হয়েছে। স্বাধীনতার ৫০ বছর পর আমাদের ভোটের অধিকারের জন্য লড়াই-সংগ্রাম করে জীবন দিতে হচ্ছে। তারা সরাসরি ভোট দিতে চায় না। কারণ ভোট হলে আমানত থাকবে না। এজন্য ফন্দি ফিকির শুরু করেছে। তারা থাকবে ক্ষমতায়, তারা মন্ত্রী-এমপি থাকবে, আর আমরা ভোট দিবে। এজন্য আবার সমস্যা শুরু করেছে। ফের গায়েবী মামলা হয়েছে। পত্রিকায় হেডলাইন হচ্ছে। বলা হচ্ছে ককটেল বিস্ফোরণের কথা। কিন্তু পাবলিক বলছে আমরা শুনিনি।


তাদের গন্ডারের মতো চামরা হয়েছে। বেশরম, বেহায়া হয়ে গেছে সরকার।

তিনি বলেন, ঢাকার গণসমাবেশ নস্যাৎ করতে আগে থেকেই মামলা দেওয়া হয়েছে। এসব করে আমাদের সমাবেশ বন্ধ করা যায়নি, যাবেও না। ঢাকা-রাজশাহীতেও সমাবেশ বন্ধ করা যাবে না। আমাদের কথা পরিস্কার। আমরা অধিকার আদায়ের জন্য শান্তিপূর্ণ আন্দোলন করছি। অগ্নিসন্ত্রাস করে আপনারা বিরোধী দল- বিএনপির নাম দিচ্ছেন। চট্টগ্রামেও ছাত্রলীগের আগুন সন্ত্রাসের পর বিএনপির নামে মামলা দেওয়া হয়েছে। কুমিল্লায়ও একই ঘটনা ঘটেছে। কুমিল্লার হিরু-হুমায়ূনকে গুম করা হয়েছে। তাদের সন্তানেরা বাবাকে পায় না। সন্তানদের চোখ ছল ছল করে, আমরা সান্ত¦না দিতে পারি না। সিলেটের ইলিয়াসকে গুম করা হয়েছে।

বিএনপির মহাসচিব বলেন, কিছুদিন আগে প্রধানমন্ত্রী বলেছেন, রিজার্ভ কি আমরা চিবিয়ে খেয়েছি? আমি বলি- রির্জাব আপনারা চিবিয়ে খাননি, গিলেই খেয়ে ফেলেছেন। সব খেয়ে ফেলেছেন, বিলিয়ন বিলিয়ন ডলার পাচার করে বিদেশে পাঠিয়ে দিয়েছেন। বাংলাদেশ থেকে গত ১০ বছরে হাজার-হাজার কোটি টাকা বিদেশে পাচার হয়ে গেছে। বিদ্যুতের জন্য ৭৮ হাজার কোটি টাকা তারা ১ বছরে পাচার করেছে। বিদ্যুতের দাম কতো বাড়িয়েছে? দাম দিতে দিতে আমরা দিশেহারা হয়ে গেছি। অকটেন, ডিজেল পেঁয়াজের দাম বাড়িয়েছে। সবকিছুর বাদম বেড়ছে। আয় বাড়েনি। কিন্তু ওদের আয় বাড়ে। তারা ফুলে ফেঁপে যাচ্ছে। একজনের ৪টা বাড়ি থেকে ১০টা বাড়ি হয়েছে। আমাদের সাধারণ মানুষেরা দু’বেলা দু মুঠো খেতে পায় না। আমাদের মা-বোনেরা তাদের সন্তানকে একটি ডিমও খাওয়াতে পারছেন না।

বিএনপির সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান তারেক রহমানের নির্দেশনার কথা উল্লেখ করে তিনি বলেন, আমাদের নেতা ৮ হাজার মাইল দুর থেকে ডাক দিয়েছেন ট্যাক-ব্যাক বাংলাদেশ। কোন বাংলাদেশ? যে বাংলাদেশের স্বপ্ন আমরা দেখেছিলাম। যে স্বপ্ন দেখে দেশ স্বাধীন করেছিলাম। আমাদের দেশের মানুষ সুখে-শান্তিতে থাকতে পারে, সেই বাংলাদেশ।

কিন্তু এই সরকার কোথাও কিছু রাখেনি। ন্যায় বিচার পাপওয়া যায় না। মিথ্যা মামলা দিয়ে সাজা দিয়ে দেয়। এখানের উপস্থিত আমাদের নেতাদের বিরুদ্ধে ৫০/৬০টি করে মামলা রয়েছে। আমাদের নেত্রী বেগম খালেদা জিয়াকে মিথ্যা মামলায় সাজা দিয়ে আটকে রাখা হয়েছে। সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান তারেক রহমানকে মিথ্যা মামলায় সাজা দিয়েছে, তিনি দেশে আসতে পারছেন না।

একমাত্র খালেদা জিয়ার মাধ্যমে দেশের পরিবর্তন সম্ভব। আমরা সব দল নিয়ে জাতীয় সরকার গঠন করবো।

কুমিল্লা দক্ষিণ জেলা বিএনপির আহবায়ক ও কেন্দ্রীয় ত্রাণ ও পুনর্বাসন সম্পাদক হাজী আমিন উর রশিদ ইয়াছিনের সভাপতিত্বে সমাবেশে অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন বিএনপির স্থাযী কমিটির সদস্য ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন, স্থায়ী কমিটির সদস্য নজরুল ইসলাম খান, স্থায়ী কমিটির সদস্য মির্জা আব্বাস, কেন্দ্রীয় ভাইস চেয়ারম্যান বরকত উল্লা বুলু, আন্তর্জাতিক বিষয়ক সহ সম্পাদক এবং সংরক্ষিত নারী আসনের এমপি ব্যারিস্টার রুমিন ফারহানা, কুমিল্লা বিভাগীয় সাংগঠনিক সম্পাদক মোস্তাক মিয়াসহ কুমিল্লা সাংগঠনিক বিভাগের শীর্ষ নেতৃবৃন্দ।

গণসমাবেশ পরিচালনা করেন কুমিল্লা মহানগর বিএনপির আহবায়ক উদবাতুল বারী আবু এবং সদস্য সচিব ইউসুফ মোল্লা টিপু। এ‌দি‌কে সমা‌বে‌শে বিএন‌পি থে‌কে ব‌হিস্কৃত সা‌বেক মেয়র ম‌নিরুল হক সাক্কু ,নিজাম উ‌দ্দিন কায়সার ও অব‌্যহ‌তি প্রাপ্ত আ‌মিরুজ্জামান আ‌মির তা‌দের অনুসারী নেতাকর্মী‌দের নি‌য়ে উপ‌স্থিত ছি‌লেন।


আরও খবর



সিলেটের সাথে উত্তরার সমাবেশ মিলিয়ে দেখুন:বাকীটা নির্বাচ‌নে কাদের

প্রকাশিত:সোমবার ২১ নভেম্বর ২০২২ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ০১ ডিসেম্বর ২০২২ |
Image

কুমিল্লা ব্যুরো ঃ

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক, সড়ক ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেন, গতকাল সিলেটের সমাবেশের সাথে ঢাকার উত্তরার সমাবেশ মিলিয়ে দেখুন। বুঝবেন কার পায়ের তলায় মাটি নেই। বাকীটা দেশের মানুষ নির্বাচনে সিদ্ধান্ত নেবে। সোমবার (২১ নভেম্বর) কুমিল্লা সেনানিবাসের এমআর চৌধুরী প্রাঙ্গণে সশস্ত্র বাহিনী দিবসের কেক কাটা শেষে সাংবাদিকদের এসব কথা বলেন তিনি। 

এ সময় কাদের আরো বলেন, শেখ হাসিনার মত নেতা না থাকলে এ দেশে উন্নয়ন হয় না তা প্রমাণিত সত্য। বাঞ্ছারামপুরের ঘটনাটি সাজানো বানানো। বাস্তবে সত্য নয়।

তিনি আরও বলেন, সশস্ত্র বাহিনী আমাদের দুর্যোগের বন্ধু। এছাড়াও জাতিসংঘ শান্তিরক্ষা কার্যক্রমে নিষ্ঠার সঙ্গে দায়িত্ব পালন করে সশস্ত্র বাহিনী  আন্তর্জাতিক পরিমÐলে দেশের ভাবমূর্তি উজ্জ্বল করেছে।

অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন ৩৩ পদাতিক ডিভিশন জেনারেল অফিসার কমান্ডিং মেজর জেনারেল মো. মাইনুর রহমান,  বীর মুক্তিযোদ্ধা অ্যাডভোকেট আবুল হাশেম খান এমপি, রাজি মোহাম্মদ ফখরুল এমপি, নাসিমুল আলম নজরুল এমপি, ডা. প্রাণ গোপাল দত্ত এমপি, নিজাম উদ্দিন হাজারী এমপি, এইচএম ইব্রাহিম এমপি, আঞ্জুম সুলতানা এমপি, এ্যারোমা দত্ত এমপি, উম্মে ফাতেমা নাজমা বেগম শিউলি এমপি, ফরিদা আলম সাকী এমপি, কুমিল্লা জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ কামরুল হাসান, কুমিল্লার পুলিশ সুপার আবদুল মান্নানসহ কুমিল্লা,ফেনী ,চাদঁপুর,নোয়াখালী, ব্রাহ্মণবাড়িয়া,লক্ষীপুর জেলার রাজনৈতিক ব্যক্তিত্বসহ বীরমুক্তিযোদ্ধা, বীরপ্রতীক, মুক্তিযোদ্ধা পরিবারবর্গ, সেনাবাহিনী ও প্রশাসনের ঊধ্বর্তন কর্মকর্তারা। অনুষ্ঠানে ৯৪০ জন বীরমুক্তিযোদ্ধা পরিবারের সদস্যদের হাতে উপহার সামগ্রী তুলে দেন অতিথিবৃন্দ।


আরও খবর