Logo
শিরোনাম

ইউটিউব দেখুন বিজ্ঞাপন ছাড়া

প্রকাশিত:রবিবার ১৯ নভেম্বর ২০২৩ | হালনাগাদ:শনিবার ১৩ এপ্রিল ২০২৪ |

Image

বিশ্বের অন্যতম জনপ্রিয় ভিডিও স্ট্রিমিং প্ল্যাটফর্ম ইউটিউব। যেখানে আপনার বিনোদনের খোরাক মেটাতে পারেন খুব সহজেই। সিনেমা, গান, নাটক সব কিছুই রয়েছে এখানে। এছাড়া ইউটিউব থেকে অনেকেই মাসে লাখ লাখ টাকা আয় করছেন।

তবে ইউটিউবে বিজ্ঞাপনের জন্য কোনো ভিডিও দেখে শান্তি নেই। অনেকেই বিজ্ঞাপন আসা বন্ধ করে রাখেন। তবে এখন এটি বিনামূল্যে আর করা যাবে না। ইউটিউব সবাই বিনামূল্যেই ব্যবহার করতে পারেন। কিন্তু সেই পরিষেবা পেতে গিয়ে গুচ্ছের বিজ্ঞাপনের সম্মুখীন হতে হয় ইউজারদের। যা এড়াতে চাইলেও সম্ভব হয় না। কেউ যদি সেই বিজ্ঞাপন বন্ধ করতে চান, তাহলে তাকে মোটা টাকা দিয়ে ইউটিউব প্রিমিয়াম সাবস্ক্রিপশন নিতে হয়।

অনেকেই বিজ্ঞাপন মুক্ত ইউটিউব ব্যবহার করার জন্য অনেকে অ্যাড ব্লকার ব্যবহার করেন। এই উপায়ে যেমন প্রিমিয়াম সাবস্ক্রিপশনের জন্য টাকা খরচ করতে হয় না, তেমনই শান্তিতে ভিডিয়ো উপভোগ করা যায়। তবে সম্প্রতি এই ধরনের অ্যাড ব্লকারের বিরুদ্ধে ক্র্যাকডাউন অভিযান শুরু করেছে ইউটিউব।

সংস্থা জানিয়েছে, অ্যাড ব্লকারের ফলে সংস্থা আয়ে ব্যাপক প্রভাব পড়েছে। লোকসানের মুখোমুখি হতে হচ্ছে তাদের। যে কারণে এই পদক্ষেপ নিয়েছে ইউটিউব। চলতি বছরের শুরু থেকেই অ্যান্টি-অ্যাড ব্লকার ক্র্যাকডাউন অভিযান শুরু করেছে সংস্থা। জানা গেছে, এই অভিযান আরও বড় আকারে নিতে চলেছে। যার ফলে ইউটিউবে কোনোভাবেই আর ব্যবহার করা যাবে না অ্যাড ব্লকার।


আরও খবর

হোয়াটসঅ্যাপ নতুন ফিচার আসছে

শনিবার ০৬ এপ্রিল ২০২৪

মোবাইল আসক্তি কমাবেন যেভাবে

শনিবার ০৬ এপ্রিল ২০২৪




নওগাঁয় গৃহবধূকে হত্যার অভিযোগে স্বামী, শাশুড়ী ও দেবরকে আটক করেছে র‌্যাব

প্রকাশিত:বুধবার ২৭ মার্চ ২০২৪ | হালনাগাদ:বুধবার ১০ এপ্রিল ২০২৪ |

Image

শহিদুল ইসলাম জি এম মিঠন, সিনিয়র রিপোর্টার :

নওগাঁয় গৃহবধু আয়না হত্যা মামলার মূল পরিকল্পনাকারী শাশুড়ী আমেনা, স্বামী এরশাদ ও দেবর শাকিল'কে ঢাকার আদাবর এলাকায় যৌথ অভিযান চালিয়ে আটক করেছে র‌্যাব।

সত্যতা নিশ্চিত করে র‌্যাব-৫, সিপিসি-৩ কাম্প থেকে জানানো হয়, গোয়েন্দা তথ্যের ভিত্তিতে র‌্যাব-৫, সিপিসি-৩, এর চৌকস অভিযানিক দল মঙ্গলবার ঢাকা জেলার আদাবর থানাধীন সুনিবির হাউজিং এলাকা অভিযান পরিচালনা করে গৃহবধূ আয়না হত্যা মামলার এজাহার নামীয় পলাতক স্বামী নুরুল আমিন ওরফে এরশাদ (৩২), দেবর শাকিল হোসেন (২২) উভয়ের পিতা খোরশেদ আলম এবং তাদের মা মোসাঃ আমেনা বেগম কে আটক করা হয়। আটককৃতরা সকলে, নওগাঁর ধামুরহাট উপজেলার বিহারী নগর গ্রামের বাসিন্দা।


মামলার বরাত দিয়ে র‌্যাব জানায়, গত ১২ মার্চ নওগাঁর ধামুইরহাট উপজেলার বিহারীনগর গ্রামের নরুল আমিন ওরফে এরশাদ এর স্ত্রী মহসিনা খাতুন ওরফে আয়না (৩০) কে ভোর রাতে বাড়ীর পূর্ব পার্শ্বে একটি আম গাছে গলায় ফাঁস দেওয়া অবস্থায় দেখতে পায় পরিবারের সদস্যরা। পরবর্তীতে পরিবারের লোকজন থানা পুলিশ কে খবর দিলে সকালে পুলিশ মৃতদেহ উদ্ধার করে। উল্লেখ্য, মৃত আয়না আক্তারের সাথে তার শাশুড়ী আমেনা, স্বামী এরশাদ ও দেবর শাকিল এর সাথে বাবার বাড়ি থেকে যৌতুকের টাকা, সোফা সেট, আলমীরা ও খাট ইত্যাদি আনার জন্য বিরোধ লেগেই থাকতো। সেই জের ধরে হত্যার মূল পরিকল্পনাকারী শাশুড়ী আমেনা, স্বামী এরশাদ, দেবর শাকিল এবং আমেনার জামাতা বিদ্যুৎ তাকে শ্বাসরোধ করে হত্যা করে গলায় ফাঁস লাগিয়ে আম গাছে ঝুলিয়ে রেখেছে বলে জানান মৃতের স্বজনরা। এঘটনায় মৃতের চাচা আব্দুল হামিদ বাদী হয়ে ধামুইরহাট থানায় ভাতিজিকে শ্বাসরোধে হত্যার দ্বায়ে একটি হত্যা মামলা রুজু করেন। মামলার পর থেকেই শাশুড়ী আমেনা, স্বামী এরশাদ, দেবর শাকিল ও আমেনার জামাতা বিদ্যুৎ আত্নগোপনে চলে গেলে র‌্যাব-৫, সিপিসি-৩, এর একটি আভিযানিক দল গত ২৩ মার্চ আমেনার জামাতা বিদ্যুৎ কে নওগাঁর ধামুইরহাট উপজেলার গোপিরামপুর থেকে আটক করেন এবং আমেনা, এরশাদ ও শাকিল কে গ্রেফতারের জন্য বিভিন্ন জায়গায় অভিযান চালায়। পরবর্তীতে র‌্যাব-২, সিপিসি-১ এর সহায়তায় হত্যার মূল পরিকল্পনাকারী আমেনা, স্বামী এরশাদ ও দেবর শাকিল কে ঢাকা জেলার আদাবর থানাধীন সুনিবির হাউজিং এলাকায় থেকে ২৬ আটক করা হয়।


আরও খবর



নওগাঁয় স্ত্রীর পরকীয়া প্রেমিককে ছুরিকাঘাতে হত্যার পর পালিয়েছে স্বামী

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ১৪ মার্চ ২০২৪ | হালনাগাদ:শুক্রবার ১২ এপ্রিল ২০২৪ |

Image

শহিদুল ইসলাম জি এম মিঠন :

নওগাঁয় স্ত্রীর সাথে পরকীয়া সম্পর্ক এর ঘটনায় তাসিবুল ইসলাম বুলু (৫২) নামের এক ব্যাক্তিকে ছুরিকাঘাতে খুন করা হয়েছে। ছরিকাঘাতে এ খুনের ঘটনাটি ঘটে বৃহস্পতিবার পূর্ব রাতে নওগাঁর মহাদেবপুর উপজেলার নওহাটামোড় বাজার সংলগ্ন বেলঘরিয়া এলাকায় স্টার রাইস মিলের ভিতরে।ঘটনার পর থেকেই অভিযুক্ত খুনি আজিজুল ইসলাম পলাতক রয়েছে বলে জানান মহাদেবপুর থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ রুহুল আমিন। ছুরিকাঘাতে নিহত তাসিবুল ইসলাম স্টার রাইচ মিলের ম্যানেজার এবং নওগাঁর মান্দা উপজেলার চকড়ানন্দ গ্রামের মৃত আনিসুর রহমানের ছেলে।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, নিহত তাসিবুল স্টার রাইস মিলের ম্যানেজারের হিসাবে দীর্ঘদিন যাবৎ কর্মরত ছিলেন। একই মিলের কর্মচারী আজিজুল ইসলামের স্ত্রী মোছাঃ মালেকা বেগম (৪০) এর সাথে তিনি পরকীয়ায় সম্পর্কে জড়িয়ে পড়েন। স্ত্রীর সাথে পরকীয়া সম্পর্ক এর জেরে আজিজুল ইসলামের সাথে তাসিবুল ইসলাম বুলুর বাক-বিতন্ডার এক পর্যায়ে মারামারি শুরু হয়। এসময় তাসিবুলকে ধারালো ছুরি দিয়ে বুক ও পিঠের কয়েকটি স্থানে ছুরিকাঘাত করেন এসময় তার স্ত্রীকেও আঘাত করেন। তাৎক্ষণিকভাবে গুরুতর অসুস্থ অবস্থায় মিলের অন্যান্যরা ম্যানেজার ও মালেকা বেগমকে উদ্ধার করে নওগাঁ সদর হাসপাতালে চিকিৎসার জন্য প্রেরণ করেন। হাসপাতালে পৌঁছালে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাসিবুলকে মৃত ঘোষণা করেন। 

এব্যাপারে মহাদেবপুর থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ রুহুল আমিন নিহতের পরিবারের বরাত দিয়ে বলেন, নিহতের মৃতদেহ দাফন শেষে তারা থানায় এসে মামলা দায়ের করবেন। তবে হত্যা করার পর থেকে হত্যাকারী পলাতক রয়েছে।


আরও খবর



কুমিল্লায় বিজয় এক্সপ্রেক্স যাত্রীবাহি ট্রেনের ৭টি বগি লাইনচ্যুত আহত- ৫

প্রকাশিত:রবিবার ১৭ মার্চ ২০২৪ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ১১ এপ্রিল ২০২৪ |

Image

কুমিল্লার নাঙ্গলকোটের তেজের বাজার এলাকায় চট্টগ্রাম থেকে ময়মনসিংহগামী যাত্রীবাহি বিজয় এক্সপ্রেক্স  ৭৮৫ ট্রেনটির ৭টি বগি লাইনচ্যুত হয়েছে।এসময় ৪/৫জন আহত হয়েছে।তবে ডাউন লাইন স্বাভাবিক।

রোববার দুপুর ১টা ৫০ মিনিটে  দূর্ঘটনাটি ঘটে।

 ট্রেনের ইঞ্জিলের সাথে বগির লক ভেঙ্গে  এ দূর্ঘটনাটি ঘটেছে বলে জানান স্থানীয়রা।

লাকসাম স্টেশন মাস্টার মাহবুবুর রহমান জানান- কুমিল্লার  চৌদ্দগ্রাম গুনবতি স্টেশন থেকে পার হয়ে নাঙ্গলকোট উপজেলার ঢালুয়া ইউনিয়েরর হাসানপুর তেজের বাজার এলাকায় দুপুর ১টা ৫০ মিনিটে চট্টগ্রাম থেকে ময়মনসিংহগামী বিজয়এক্সপ্রেস ৭৮৫ট্রেনটির ৭টি বগি লাইনচ্যুত হয়। তবে এঘটনা হতাহতের খবর জানা যায়নি। লাকসাম জংশন থেকে উদ্ধারকারী রিলিফ ট্রেন ঘটনাস্থলে যাচ্ছে। খুব শীঘ্রই ডাউন লাইনে ট্রেন চলাচল করবে।

 কুমিল্লা উধ্বতন উপসহকারী প্রকৌশলী রেলপথ পূর্বাঞ্চল লিযাকত আলী মজুমদার জানান- ট্রেনের ইঞ্জিল রেললাইনে আছে। ২টি বগি লাইনচ্যুত হয়ে পড়ে গেছে।।তার সাথে ৫টি বগি লাইনচ্যুত হয়েছে। তবে ডাউন লাইনে ট্রেন চলাচল স্বাভাবিক রয়েছে।  এখন পযন্ত হতাহতের খবর পাওয়া যায়নি।এ ঘটনায় রেলের একটি তদন্ত কমিটি গঠন করা হবে দূর্ঘটনার কারণ জানতে।


আরও খবর



বুয়েটে ছাত্র রাজনীতিতে বাধা নেই: হাইকোর্ট

প্রকাশিত:সোমবার ০১ এপ্রিল ২০২৪ | হালনাগাদ:শুক্রবার ১২ এপ্রিল ২০২৪ |

Image

বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ে (বুয়েট) ছাত্ররাজনীতি নিষিদ্ধ করে ২০১৯ সালে জারি করা প্রজ্ঞাপন স্থগিত করেছেন হাইকোর্ট। এই আদেশের ফলে বুয়েটে ছাত্ররাজনীতিতে আর কোনো বাধা নেই বলে জানিয়েছেন রিটকারীর আইনজীবী।

একইসাথে, বুয়েটে ছাত্ররাজনীতি নিষিদ্ধ করে জারি করা প্রজ্ঞাপন কেন অবৈধ ও বেআইনি ঘোষণা করা হবে না, জানতে চেয়ে রুল জারি করেছেন আদালত।

সোমবার হাইকোর্টের বিচারপতি মো: খসরুজ্জামান ও বিচারপতি কে এম জাহিদ সারওয়ার কাজলের সমন্বয়ে গঠিত বেঞ্চ এই আদেশ দেন।

আদালতে রিটের পক্ষে শুনানিতে ছিলেন জ্যেষ্ঠ আইনজীবী শাহ মঞ্জরুল হক, অ্যাডভোকের নুরুল ইসলাম সুজন, ব্যারিস্টার হারুনুর রশিদ।

এর আগে হাইকোর্টের সংশ্লিষ্ট শাখায় আজ সোমবার বুয়েটের শিক্ষার্থী ও ছাত্রলীগ নেতা ইমতিয়াজ রাব্বি এ রিট দায়ের করেন। রিটে শিক্ষা সচিব, বুয়েটের ভিসিসহ সংশ্লিষ্টদের বিবাদী করা হয়েছে।

গত ২৭ মার্চ দিবাগত রাত ১টার দিকে ছাত্রলীগের শীর্ষ নেতাদের নেতৃত্বে বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয় (বুয়েট) ক্যাম্পাসে প্রবেশ করে ছাত্রলীগের একদল নেতাকর্মী। এর প্রতিবাদে পরদিন শুক্রবার আন্দোলনে নামেন বুয়েট শিক্ষার্থীরা। এসময় শিক্ষার্থীরা ক্যাম্পাসে ছাত্ররাজনীতি নিষিদ্ধসহ ছয় দফা দাবি পেশ করেন।

বুয়েটে জোরালোভাবে ছাত্ররাজনীতি বন্ধের দাবি ওঠে ২০১৯ সালের ৭ অক্টোবর ইলেকট্রিক্যাল অ্যান্ড ইলেকট্রনিকস ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের দ্বিতীয় বর্ষের শিক্ষার্থী আবরার ফাহাদ হত্যাকাণ্ডের পর। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে মত প্রকাশে সক্রিয় থাকায় শেরেবাংলা হলের একটি কক্ষে ডেকে নিয়ে ছাত্রলীগের নেতা-কর্মীরা তাকে নির্মমভাবে পিটিয়ে হত্যা করে। সহপাঠী হত্যার প্রতিবাদে টানা আন্দোলন শুরু করেন বুয়েটের শিক্ষার্থীরা। আন্দোলনের একপর্যায়ে ২০১৯ সালের ১১ অক্টোবর বুয়েট কর্তৃপক্ষ বিশ্ববিদ্যালয়টিতে সব ধরনের ছাত্ররাজনীতি নিষিদ্ধ করে।


আরও খবর

সংশোধনী আসছে কাবিননামায়

বৃহস্পতিবার ১১ এপ্রিল ২০২৪




অবৈধ ও ক্ষতিকর ট্যাবলেট-ইনজেকশনসহ গ্রেপ্তার ২

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ১১ এপ্রিল ২০২৪ | হালনাগাদ:শনিবার ১৩ এপ্রিল ২০২৪ |

Image

রাজধানীর লালবাগ এলাকা থেকে অবৈধ এবং মানবদেহের জন্য ক্ষতিকারক এক লাখ ৬৬ হাজার পিস ট্যাবলেট, ইনজেকশন ও সাপ্লিমেন্টারিসহ দুজনকে গ্রেপ্তার করেছে র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়ন (র‌্যাব)।

গ্রেপ্তাররা হলেন- মো. রায়হানুর রহমান (৩১) ও মো. তাহানান জাওয়াদ (২৪)। তাদের কাছ থেকে জব্দ করা ট্যাবলেট, ইনজেকশন ও সাপ্লিমেন্টারির দাম প্রায় অর্ধ কোটি টাকা।

বুধবার র‍্যাব-১০ এর সহকারী পরিচালক (মিডিয়া) সহকারী পুলিশ সুপার এম জে সোহেল বিষয়টি নিশ্চিত করেন।

তিনি জানান, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে মঙ্গলবার দুপুর থেকে বিকাল পর্যন্ত ঔষধ প্রশাসন অধিদপ্তর ও র‌্যাব-১০ লালবাগে যৌথ অভিযান চালায়। অভিযানে আনুমানিক অর্ধ কোটি টাকা মূল্যের এক লাখ ৬৬ হাজার পিস অবৈধ বিদেশি যৌনশক্তিবর্ধক এবং মানবদেহের জন্য ক্ষতিকারক ট্যাবলেট, ইনজেকশন ও সাপ্লিমেন্টারিসহ ওষুধ কালোবাজারি চক্রের দুই সদস্যকে গ্রেপ্তার করা হয়।

জিজ্ঞাসাবাদের ভিত্তিতে র‍্যাবের এ কর্মকর্তা জানান, গ্রেপ্তাররা পেশাদার ওষুধ কালোবাজারি চক্রের সক্রিয় সদস্য। তারা বেশ কিছুদিন ধরে অবৈধ বিদেশি যৌনশক্তিবর্ধক এবং মানবদেহের জন্য ক্ষতিকারক ট্যাবলেট, ইনজেকশন ও সাপ্লিমেন্টারিসহ বিভিন্ন প্রকার ওষুধ কালোবাজারি ও চোরাচালানের মাধ্যমে সংগ্রহ করে মজুত করে রাখতেন। পরে ওই ওষুধ দেশের বিভিন্ন এলাকার দোকানে সরবরাহ করতেন।


আরও খবর