Logo
শিরোনাম
বাউল ছালমা হলেন বরিশাল বিভাগের শ্রেষ্ঠ "জয়িতা" পাংশায় মাদক সহ ৯ মামলার আসামী গ্রেফতার ১৬৩ টাকায় তেল বিক্রির ব্যত্যয় ঘটলে ব্যবস্থা নেয়া হবে: ভোক্তার মহাপরিচালক দুর্গাপুরে বালুবাহী হ্যান্ডট্রলির চাপায় প্রাণ গেল শিক্ষার্থীর নওগাঁ জেলা প্রেস ক্লাবের সভাপতি আবু বক্কর, সাধারণ সম্পাদক বেলায়েত নওগাঁয় প্রাইভেটকার তল্লাসি, ৭২ কেজি গাঁজা সহ যুবক আটক রূপগঞ্জে প্রাইভেটকার চাপায় গৃহবধু নিহত রাঙ্গামাটির বড়ইছড়ি নির্মাণ শ্রমিক বোঝাই ট্রাক খাদে নিহত-২, আহত-২০ মুসলিমদেরকে সঠিক পথ থেকে বিচ্যুত করার জন্য বিভিন্ন ষড়যন্ত্র চলছে নওগাঁয় কম্পিউটার ব্যবসার অন্তরালে অশ্লিল ভিডিও বিক্রি করায় ৩ যুবক আটক

স্বতন্ত্র আতঙ্কে জোট ও আওয়ামী লীগের দুর্বল প্রার্থিরা : বসিয়ে দিতে তৎপরতা

প্রকাশিত:বুধবার ০৬ ডিসেম্বর ২০২৩ | হালনাগাদ:শুক্রবার ০১ মার্চ ২০২৪ |

Image

সদরুল আইন :স্বতন্ত্র প্রার্থিদের জনপ্রিয়তার কাছে ক্রমশ কোনঠাঁসা হয়ে পড়ছে জোট ও আওয়ামী লীগের দুর্বল প্রার্থিরা।

এবারের নির্বাচনে নৌকা ও জোটের অনেক প্রার্থিরই ভরাডুবি ঘটবে জনপ্রিয় স্বতন্ত্র প্রার্থিদের জনপ্রিয়তার দাপটে তার আলামত এখনই দৃশ্যমান।

এতদিন নৌকা পাওয়া মানেই নিশ্চিত বিজয় মনে করেছিল যেসব প্রার্থিরা এবারের নির্বাচনে ইতিমধ্যেই তাদের কপালে চিন্তার বলীরেখা পড়তে শুরু করেছে।কেন্দ্রিয় কতিপয় নেতা আ,লীগের স্বতন্ত্রদের বসিয়ে দিতে নানা তৎপরতা চালালেও প্রধানমন্ত্রীর কড়া মনোভাবের কারনে তা এখন পর্যন্ত সম্ভব হয়নি।

দলটির উচ্চ পর্যায়ের বিভিন্ন সূত্র জানাচ্ছেন যে, হয়ত শেষ পর্যন্ত কিছু কিছু আসনে মনোনয়ন বঞ্চিত প্রার্থি ও অজনপ্রিয় স্বতন্ত্রদের বসিয়ে দেওয়া হতে পারে তবে তা গণহারে করা হবে না।

যারা সত্যিকার অর্থেই জনপ্রিয় তারা প্রতিদ্বন্দ্বিতা করে মুক্ত নির্বাচনের মাধ্যমে জয়ী হলে তাদেরকে স্বাগত জানাবে আ.লীগ।

এবারের নির্বাচনে কোন রকম হস্তক্ষেপ করা হবে না।নির্বাচনে জিতে আসার দায়িত্ব প্রার্থির নিজের।জিতার প্রশ্নে কোন রকম সহায়তা করবে না দলটি।প্রশাসন থাকবে সম্পূর্ণ নিরপেক্ষ।কোন কেন্দ্রে বা প্রচারনায় যদি নৌকার প্রার্থিও স্বতন্ত্রদের বিরুদ্ধে পেশিশক্তি প্রদর্শণ করে তবে তার বিরুদ্ধে সঙ্গে সঙ্গে আইনী ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।

অপরদিকে আওয়ামী লীগ তার মহাজোট এবং ১৪ দলের শরিকদেরকে আসন ছাড় দেওয়ার বিষয়টি বিবেচনা করছে। এ নিয়ে দফায় দফায় বৈঠক চলছে।

 ১৪ দলের সঙ্গে বৈঠক করেছেন স্বয়ং প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। এরপর ১৪ দলের সমন্বয়ক আমির হোসেন আমুকে দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে ১৪ দলের সঙ্গে আসন সমঝোতার বিষয়টি চূড়ান্ত করার জন্য। 

অন্যদিকে জাতীয় পার্টির সঙ্গেও আজ বৈঠক অনুষ্ঠিত হচ্ছে। এখানেও আসন সমঝোতার বিষয়টি আলোচনা হবে। আওয়ামী লীগ শরিকদের কতগুলো আসন ছাড়বে তার দিকে তাকিয়ে আছে ১৪ দলের শরিকরা। এমনকি জাতীয় পার্টিও। 

যে সমস্ত আসন ১৪ দলের শরিকদেরকে আওয়ামী লীগ ছেড়ে দিবে, সেই সমস্ত আসনগুলোতে ১৪ দলের শরিকরা নৌকা প্রতীক নিয়ে নির্বাচন করবে এমনটি নিশ্চিত হওয়া গেছে। 

এখানে আওয়ামী লীগ পাঁচ থেকে ছয়টি আসন দিতে রাজি। তবে ১৪ দলের অন্যতম নেতা হাসানুল হক ইনু গতকাল আমির হোসেন আমুর সঙ্গে সাক্ষাৎ শেষে বলেছেন যে, তারা ২০টি আসন প্রত্যাশা করে।

 তবে ২০টি আসনের বিষয়টিকে অতি বাড়াবাড়ি এবং অপ্রত্যাশিত চাওয়া হিসাবে মনে করছে আওয়ামী লীগ। তাদের কোন অবস্থাতেই এতগুলো আসন দেওয়া হবে না। এটা ১৪ দলের শরিকরাও জানেন।

তবে এখন সমস্যা দেখা দিয়েছে অন্য জায়গায়। ১৪ দল যে কটি আসন পাক না কেন, সেটার চেয়েও ১৪ দলের এখন বড় প্রত্যাশা জায়গা হল যে সমস্ত আসনে ১৪ দলের শরিকরা নৌকা প্রতীক পাবেন সেই সমস্ত আসনে যেন আওয়ামী লীগের স্বতন্ত্র বা বিদ্রোহী প্রার্থীরা না থাকে।

 স্বতন্ত্র বা বিদ্রোহী প্রার্থীরা থাকলে ১৪ শরিকদের যারা নৌকা প্রতীক নিয়ে নির্বাচন করছেন, তাদের জয় অসম্ভব হয়ে যেতে পারে এবং তারা বড় ধরনের চাপের মুখে পড়তে পারেন। 

একারণে তারা এখন আওয়ামী লীগের সঙ্গে দেন দরবার করছেন। অন্তত নৌকা প্রতীক নিয়ে যেখানে যেখানে তারা নির্বাচন করবেন সেখানে সেখানে যেন স্বতন্ত্র প্রার্থীদের বিশেষ করে আওয়ামী লীগের স্বতন্ত্র প্রার্থীদের যেকোনো মূল্যে বসিয়ে দেওয়া হয়। 

কিন্তু আওয়ামী লীগের পক্ষ থেকে এখন পর্যন্ত এ ব্যাপারে কোন ইতিবাচক সাড়া দেওয়া হয়নি। একই অবস্থা জাতীয় পার্টির ক্ষেত্রেও। জাতীয় পার্টি মনে করছে যে, আওয়ামী লীগের প্রার্থীরা যদি নৌকা প্রতীক থেকে বসে যান তাহলে সমস্যার সমাধান হবে না। বরং তখন সমস্যা আরও বাড়বে। 

তাদের কাছে মনে হচ্ছে যে, যদি শেষ পর্যন্ত একটি নির্বাচনী এলাকায় নৌকা প্রতীক না থাকে, তাহলে আওয়ামী লীগের যিনি বিদ্রোহী প্রার্থী আছেন তার পক্ষে আওয়ামী লীগের সব নেতাকর্মীরা ঝাঁপিয়ে পড়বেন। ফলে স্বতন্ত্র প্রার্থীর পক্ষে একটি জোয়ার উঠতে পারে। 

এই অবস্থায় জাতীয় পার্টিতে যে কটি আসনই ছেড়ে দেওয়া হোক না কেন, প্রত্যেকেই আসনই বিপদসঙ্কুল হয়ে উঠতে পারে তাদের জন্য। আর এ কারণেই শরিকদের এখন সবচেয়ে বড় ভয়ের নাম স্বতন্ত্র প্রার্থী।

 আর এই স্বতন্ত্র প্রার্থীদেরকে নির্বাচন থেকে কিভাবে বসিয়ে দেওয়া যায় এবং স্বতন্ত্র প্রার্থীদেরকে লাগাম কিভাবে টেনে ধরা যায় সেটাই এখন জাতীয় পার্টি এবং ১৪ দলের শরিকদের প্রধান চাওয়া। 

আর এ কারণেই ১৪ দল এবং জাতীয় পার্টির নেতারা আওয়ামী লীগের কাছে স্বতন্ত্র প্রার্থী নিয়ে তাদের আতঙ্কের কথা বলেছেন।

এবার নির্বাচনে যে সমস্ত দলগুলো দুর্বল, যাদের সাংগঠনিক ক্ষমতা অত্যন্ত কম এবং যারা এতদিন শুধুমাত্র আওয়ামী লীগের কৃপায় মন্ত্রী, এমপি মন্ত্রী হয়েছেন, তাদের জন্য বড় আতঙ্কের কারণ হিসেবে এসেছে স্বতন্ত্র প্রার্থিতা।

 স্বতন্ত্র প্রার্থীরা এখন এমন অবস্থায় এসে দাঁড়িয়েছে যে, অনেক এলাকাতেই তারা আওয়ামী লীগ, জাতীয় পার্টি কিংবা ১৪ দলের শরিকদেরকে চ্যালেঞ্জ জানাতে সক্ষম এবং সেই চ্যালেঞ্জে তারা যে বিজয়ী হতে পারে সেই আশঙ্কাও উড়িয়ে দেওয়া যাচ্ছে না।


আরও খবর

গ্যাস লিকেজ থেকে বিস্ফোরণ, দগ্ধ সাত

বুধবার ২৮ ফেব্রুয়ারী ২০২৪




অনুমতি ছাড়া হজ করলে শাস্তি ঘোষণা

প্রকাশিত:শনিবার ২৪ ফেব্রুয়ারী 20২৪ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ২৯ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ |

Image

অনুমতি ছাড়া হজ পালন করাকে বেআইনি ঘোষণা করে কঠোর শাস্তির বিধান করেছে সৌদি আরব। নিরবিচ্ছিন্ন ও সুন্দরভাবে হজ মৌসুম শেষ করতেই এ বিধান জারি করা হয়েছে বলে জানিয়েছে কর্তৃপক্ষ। আর যারা এ আইন ভঙ্গ করবেন তাদেরকে ৫০ হাজার রিয়াল জরিমানা করা হবে। যা বাংলাদেশি মুদ্রায় প্রায় ১৫ লাখ টাকার সমান।

সৌদির হজ ও ওমরাহ মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, অনুমতি ছাড়া হজ পালন করা বেআইনি। আর যারা এ আইন ভঙ্গ করবেন তাদের ৫০ হাজার রিয়াল জরিমানা করা হবে। এমনকি যে বা যারা অনুমতিবিহীন ব্যক্তিদের মক্কায় পরিবহন করে ধরা পড়বেন তাদেরকেও ৫০ হাজার রিয়াল জরিমানা করা হবে।

গালফ নিউজ জানিয়েছে, যেসব প্রবাসী হজ মৌসুমের এই আইন ভঙ্গ করবেন, তাদেরকে প্রথমে ছয় মাসের কারাদণ্ড দেয়া হবে। কারাভোগের পরে নিজ দেশে তাদের ফেরত পাঠানো হবে। পাশাপাশি পরবর্তী ১০ বছরে সৌদিতে প্রবেশের ক্ষেত্রে তাদের ওপর নিষেধাজ্ঞাও দেয়া হবে। এছাড়া এই আইন ভঙ্গকারীদের পরিচয় স্থানীয় সংবাদমাধ্যমে প্রকাশ করা হবে। যেন তাদের আশপাশের সবাই চিনে রাখতে পারেন।

প্রসঙ্গত, ইসলামের অন্যতম স্তম্ব হজ। নির্দিষ্ট পরিমাণ সম্পদের মালিক ও শারীরিকভাবে সুস্থ মুসলিম নর-নারীর জন্য জীবনে একবার হলেও হজ করা ফরজ। প্রতি বছরই হজ পালন করতে পবিত্র মক্কা নগরীতে সমবেত হন লাখ লাখ মানুষ। বিশ্বের বিভিন্ন দেশ থেকে অনেক মানুষ হজ করতে যান। পাশাপাশি সৌদির স্থানীয় মানুষও পবিত্র হজ পালন করে থাকেন।


আরও খবর



মোরেলগঞ্জে আওয়ামী লীগ নেতার ওপর হামলার ঘটনায় মামলা করে বিপাকে বাদি

প্রকাশিত:সোমবার ২৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:শুক্রবার ০১ মার্চ ২০২৪ |

Image

বাগেরহাট প্রতিনিধি :

বাগেরহাটের মোরেলগঞ্জে এক ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ নেতার ওপর সন্ত্রাসী হামলার ঘটনায় মামলা করে বাদি বিপাকে পড়েছেন। মামলার বাদি ও স্বাক্ষীরা নিরাপত্তাহীনতার মধ্যে দিন কাটাচ্ছেন বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। মামলা প্রত্যাহার না করলে আবারও মারপিট করে চিরতরে পঙ্গু করে দেওয়া হবে বলে অভিযোগ করেছেন পঞ্চকরণ ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের যুগ্ম-আহŸায়ক আব্দুল রাজ্জাক খলিফা।

গত ২৫ জানুয়ারি আওয়ামী লীগ নেতা আব্দুল রাজ্জাকসহ কয়েকজনকে পিটিয়ে কুপিয়ে গুরুতর আহত করলে রাজ্জাক চিকিৎসা শেষে ৫ ফেব্রæয়ারি ১০ জনের নামে বাগেরহাট আদালতে অভিযোগ দায়ের করেন। যার মামলা নং-৩১/২৪, তারিখ-৫.২.২০২৪।  আদালতের নির্দেশে মোরেলগঞ্জ থানা পুলিশ ওই  অভিযোগপত্রটি ৭  ফেব্রুয়ারি এজাহার হিসেবে গ্রহন করে। এর পর থেকে মামলার বাদি আব্দুল রাজ্জাক ও তার স্বজনদেরকে মামলা প্রত্যাহারের জন্য চাপ সৃষ্টি করে আসছে মামলার প্রধান আসামি ইউনিয়ন যুবলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক গিয়াস হাওলাদারসহ অপর আসামিরা।

মামলার বাদি আব্দুল রাজ্জাক অভিযোগ করে বলেন, স্থানীয় রাজনৈতিক বিরোধের কারনে তাদেরকে মারপিট করা হয়েছে। কয়েকটি দোকানের ভাড়াটিয়াকে তাড়িয়ে দেওয়া হয়েছে। রাস্তা ও বাজার ঘাটে বের হলেই গালমন্দ করা হয়। মামলা প্রত্যাহার না করলে আরও খারাপ পরিনতির হুমকী দিচ্ছে আসামিরা। পুলিশ রহস্যজনক কারনে এ মামলার আসামিদেরকে গ্রেফতার করছেনা বলেও অভিযোগ বাদির।

  এ বিষয়ে মারপিটের মামলার প্রধান আসামি যুবলীগ নেতা গিয়াস হাওলাদার এসব অভিযোগ অস্বিকার করে বলেন, তুচ্ছ ঘটনায় আমাদের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করা হয়েছে। আমরা এলাকার বাইরে রয়েছি। জামিন নেওয়ার জন্য চেষ্টা করছি। হুমকীর অভিযোগ সঠিক নয়। 


আরও খবর

বাউল ছালমা হলেন বরিশাল বিভাগের শ্রেষ্ঠ "জয়িতা"

বৃহস্পতিবার ২৯ ফেব্রুয়ারী ২০২৪

পাংশায় মাদক সহ ৯ মামলার আসামী গ্রেফতার

বৃহস্পতিবার ২৯ ফেব্রুয়ারী ২০২৪




মজুতদার-সিন্ডিকেটদের মদদ দিচ্ছে বিএনপি

প্রকাশিত:শনিবার ২৪ ফেব্রুয়ারী 20২৪ | হালনাগাদ:শুক্রবার ০১ মার্চ ২০২৪ |

Image

রোকসানা মনোয়ার : দ্রব্যমূল্য নিয়ে অরাজক পরিস্থিতির সৃষ্টি করতে মজুতদার ও সিন্ডিকেটদের বিএনপি পৃষ্ঠপোষকতা ও মদদ দিচ্ছে বলে অভিযোগ করেছেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রী ওবায়দুল কাদের।

রাজধানীর ধানমন্ডিস্থ আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনার রাজনৈতিক কার্যালয়ে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে তিনি এ কথা বলেন।

ওবায়দুল কাদের বলেন, বিএনপি সিন্ডিকেট লালন পালন করছে, মজুদদারদের পৃষ্ঠপোষকতা করছে - একথা বললে কি ভুল হবে? যারা করছে, তারা বিএনপির পুরনো সিন্ডিকেট।

তিনি বলেন, বিএনপি সরকার ছিল ব্যবসায়ী সরকার। আওয়ামী লীগ ব্যবসা করতে আসেনি। এখানে দ্রব্যমূল্য নিয়ন্ত্রণে সরকার হাল ছেড়ে দিয়েছে -এ কথা মনে করার কোনো কারণ নেই। যে অশুভ চক্র দ্রব্যমূল্য বাড়িয়ে জনঅসন্তোষের কারণ সৃষ্টি করছে, তাদের কোনো অবস্থাতেই ছাড় দেয়া হবে না। প্রধানমন্ত্রী নিজেই জোরালোভাবে সেটি বলেছেন।

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বলেন, বিদ্যুতে যথেষ্ট ভর্তুকি দিতে হচ্ছে সরকারকে। এই ভর্তুকি ধীরে ধীরে কমাতে চাই। সে কারণে সমন্বয় করাটা জরুরি হয়ে পড়েছে। বিদ্যুৎ সুবিধা যদি বজায় রাখতে চাই তাহলে সমন্বয়টা আমাদের করতে হবে।

ক্ষমতায় থাকাকালে বিএনপি দফায় দফায় বিদ্যুতের দাম বাড়িয়েছিল জানিয়ে ওবায়দুল কাদের বলেন, বিএনপি ক্ষমতায় থাকতে দিনে ১৮ ঘণ্টা লোডশেডি হয়েছে এবং সেখানে বিদ্যুতের দাম পাঁচ বছরে তারা নয়বার বাড়িয়েছিল। আওয়ামী লীগ সরকার শতভাগ বিদ্যুৎ দিয়েছে। শেখ হাসিনার সরকারের আমলে বিদ্যুৎ উৎপাদন ক্ষমতা ২৯ হাজার সাত শ মেগাওয়াটে উন্নীত হয়েছে।

বিএনপি গণতন্ত্র ফিরিয়ে আনবে এবং এই আন্দোলনে সরকারের পতন অবশ্যই হবে বিএনপি নেতাদের এমন মন্তব্যের জবাবে আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক বলেন, এখন প্রশ্ন হচ্ছে দেশে একটা নির্বাচন হয়ে গেল। তারা নির্বাচনে অংশ নেয়নি। আন্দোলনের নামে সন্ত্রাসের মহড়া দিয়েছে। আগুন সন্ত্রাস করেছে। আন্দোলনের নামে বিএনপি কত ভয়ঙ্কর ভূমিকায় যেতে পারে সেটা তারা করে দেখিয়েছে বার বার। তারা জনগণের সম্পৃক্ত ছিল না বলে অতীতে তারা ব্যর্থ হয়েছে।

তিনি বলেন, ভুল ও নেতিবাচক রাজনীতি করে যাচ্ছে বিএনপি। তারা একসময় নিশ্চয়ই স্বীকার করবে আন্দোলনে তাদের ভুল আছে। নির্বাচনে না আসাটা বিএনপির সবচেয়ে বড় ভুল। এখন তারা উপলব্ধি করবে।

উপজেলা নির্বাচনে বিএনপি দলগতভাবে অংশ না নিলেও তৃণমূলে নেতারা নিজেদের অস্তিত্ব রক্ষায় নির্বাচন করবে জানিয়ে ওবায়দুল কাদের বলেন, উপজেলা নির্বাচনে অংশ নেয়া নিয়ে দলটির মধ্যে দ্বিধাদ্বন্দ্ব চলছে। আমরা দলীয় প্রতীক দিয়ে নির্বাচন করছি না। এমন অবস্থায় স্বতন্ত্র পরিচয়ে বিএনপির অনেকে নির্বাচন করবে। দলীয়ভাবে যাই করুক, যারা তৃণমূলে আছেন তাদের অস্তিত্বের বিষয় আছে। তৃণমূলে অস্তিত্ব নিয়ে টিকে থাকার প্রশ্ন আছে। আমার ধারণা, বিএনপির অনেকেই অংশ নিবে। দলগতভাবে তারা যাই বলুক না কেন।

বর্তমানে অর্থনীতির সঙ্কট আছে জানিয়ে সেতুমন্ত্রী বলেন, এজন্য আমরা দায়ী নই। বিশ্বে যুদ্ধ বিগ্রহ যেভাবে প্রসারিত হচ্ছে তাতে অর্থনীতির উপর প্রতিক্রিয়া স্বাভাবিকভাবে হচ্ছে। জিনিসপত্রের দাম বাড়ছে। কিন্তু দ্রব্যমূল্য যাতে মানুষের ক্রয়-ক্ষমতার মধ্যে থাকে সে ব্যাপারে সরকার যথেষ্ট তৎপরতায় কাজ করে যাচ্ছে। এ ব্যাপারে প্রধানমন্ত্রী মন্ত্রণালয়গুলোকে নির্দেশ দিয়েছেন, তার আলোকে সবাই কাজ করে যাচ্ছে।

বিদেশে আওয়ামী লীগ সরকারের সাবেক এক মন্ত্রীর বিপুল অর্থ সম্পদ নিয়ে গণমাধ্যমে প্রকাশিত সংবাদের বিষয়ে সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রী বলেন, দুর্নীতি করে কেউ ছাড় পাবে না। তিনি মন্ত্রী হন আর যেই হোন।

সংবাদ সম্মেলনে আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক বিএম মোজাম্মেল হক ও মির্জা আজম, বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিষয়ক সম্পাদক আবদুস সবুর, উপদপ্তর সম্পাদক সায়েম খান প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।


আরও খবর

গ্যাস লিকেজ থেকে বিস্ফোরণ, দগ্ধ সাত

বুধবার ২৮ ফেব্রুয়ারী ২০২৪




গজারিয়ায় ৪৫'তম বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি মেলায় কলেজ পর্যায়ে ১ম জিস্ট পলিটেকনিক

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ১৩ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:বুধবার ২৮ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ |

Image

সৈয়দ মোহাম্মদ শাকিল (গজারিয়া) মুন্সীগঞ্জ: 

আজ ১৩ ফেব্রুয়ারি মঙ্গলবার মুন্সিগঞ্জ জেলার গজারিয়া উপজেলায় "বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি, উদ্ভাবনী সমৃদ্ধি" স্লোগানকে সামনে রেখে গজারিয়া উপজেলা মিলনায়তন কক্ষে ৪৫'তম জাতীয় বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি সপ্তাহ্ এবং বিজ্ঞান মেলা- ২০২৪ এর সমাপনী অনুষ্ঠান আয়োজন করা হয়।

আয়োজিত বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি মেলায় গজারিয়া উপজেলার মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক পর্যায়ের বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠান অংশগ্রহন করে।গজারিয়া ইন্সটিটিউট অব সাইন্স এন্ড টেকনোলজি জিস্ট পলিটেকনিক গজারিয়া উপজেলায় উচ্চ মাধ্যমিক পর্যায়ে প্রথম স্থান অর্জন করে। এই অর্জনের ফলে উপজেলা পর্যায়ে টানা ২য় বারের মত ১ম স্থান অর্জন করে সফলতার ধারা অক্ষুন্ন রেখেছে প্রতিষ্ঠানটি। ২য় অর্জন করে গজারিয়া সরকারি কলেজ ও ৩য় স্থান অর্জন করে গজারিয়া কলিমুল্লাহ্ কলেজ।

বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি মেলার সমাপনী সভায় গজারিয়া উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা জাকির হোসেন এর সঞ্চালনায় প্রধান অথিতি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন গজারিয়া উপজেলা নির্বাহী অফিসার কোহিনুর আক্তার, বিশেষ অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন গজারিয়া উপজেলা পরিষদ ভাইস চেয়ারম্যান আতাউর রহমান নেকী খোকন, জিস্ট পলিটেকনিক ইন্সটিটিউট  অধ্যক্ষ ইঞ্জি. মোঃ মামুন শরীফ ও রেজিস্ট্রার ইঞ্জি. সৈয়দ মোহাম্মদ শাকিল সহ প্রমূখ শিক্ষক শিক্ষার্থী ও নানা শ্রেনী পেশার ব্যক্তিবর্গ ।


আরও খবর



গজারিয়ায় সদ্য যোগদানকৃত উপজেলা নির্বাহী অফিসারের মতবিনিময়

প্রকাশিত:রবিবার ০৪ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:বুধবার ২৮ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ |

Image

গজারিয়া প্রতিনিধি :

 গজারিয়ায় সদ্য যোগদানকৃত উপজেলা নির্বাহী অফিসার কোহিনুর আক্তারের সাথে উপজেলা পর্যায়ে কর্মকর্তা, বীর মুক্তিযোদ্ধা, জনপ্রতিনিধি, সুশীল সমাজ, রাজনৈতিক ও গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ এবং সাংবাদিকদের সাথে মতবিনিময় সভা করেছেন।

গত (৪ ফেব্রুয়ারী) রবিবার সকাল ১১টায় উপজেলা প্রশাসনের আয়োজনে উপজেলা পরিষদ হল রুমে এ-ই মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হয়। 

উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) জি এম রাসেদুল ইসলাম এর সঞ্চালনায়, মতবিনিময় সভায় সভাপতিত্ব করেন নবাগত উপজেলা নির্বাহী অফিসার কোহিনুর আক্তার।

উক্ত মতবিনিময় সভায় বক্তব্য রাখেন, গজারিয়া উপজেলা আওয়ামিলীগ এর সভাপতি ও উপজেলা পরিষদের সম্মানিত চেয়ারম্যান মো: আমিরুল ইসলাম,  উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান আতাউর রহমান নেকি খোকন, ইমামপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান হাফিজুজ্জামান খাঁন জিতু, বাউশিয়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মিজানুর রহমান প্রধান, ভবেরচর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান ইঞ্জিনিয়ার সাঈদ মোহাম্মদ লিটন, বালুয়াকান্দী ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান জুয়েল সরকার, টেংগারচর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান কামরুল হাসান ফরাজি, গজারিয়া থানার অফিসার ইনচার্জ মো: রাজিব খান, গজারিয়া উপজেলা প্রেসক্লাবের সভাপতি মো: জসিম উদ্দিন, গজারিয়া প্রেসক্লাবের সভাপতি মো: আরফিন,

এসময় সদ্য যোগদানকৃত নির্বাহী অফিসার কোহিনুর আক্তার তার বক্তব্যে বলেন, সকল কার্যক্রম বাস্তবায়ন করতে আপনারা আমাকে সার্বিক সহযোগিতা করতে হবে। বিভিন্ন দপ্তরের ওয়েবসাইট গুলো আপডেট কার্যক্রম চলছে অতিদ্রুত দপ্তরের রাইডগুলো আপডেট হবে।

তিনি আরো বলেন, এই উপজেলায় মাদক, সন্ত্রাস, ইভটিজিং, স্বাস্থ্য এবং উন্নয়নের লক্ষ্যে সরকারের যে নীতিমালা রয়েছে সেই প্রক্রিয়ায় কাজ করে যাবো।


আরও খবর

বাউল ছালমা হলেন বরিশাল বিভাগের শ্রেষ্ঠ "জয়িতা"

বৃহস্পতিবার ২৯ ফেব্রুয়ারী ২০২৪

পাংশায় মাদক সহ ৯ মামলার আসামী গ্রেফতার

বৃহস্পতিবার ২৯ ফেব্রুয়ারী ২০২৪